শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৩০ অপরাহ্ন

বগুড়ায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষকে পিটিয়ে হত্যা

বগুড়ায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষকে পিটিয়ে হত্যা

অল নিউজ ডেস্ক :
বগুড়ার শেরপুরে প্রতিপক্ষের সশস্ত্র হামলায় মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা মো. লুৎফর রহমান (৭০) মারা গেছেন। তিনি উপজেলার গাড়ীদহ মডেল ইউনিয়নের রামেশ্বরপুর গ্রামের হাছেন আলী প্রামাণিকের ছেলে। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে ও ছোট ভাইও আহত হয়েছেন।

আজ বুধবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে জায়গা-জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

নিহতের স্বজন ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের রামেশ্বরগ্রামে মামুনুর রশিদ ও আব্দুল মান্নানের ১৯ শতক জায়গা রয়েছে। বর্তমানে সেটি বাঁশবাগান ও কবরস্থান হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। আর তার পাশের জমিটির মালিক স্থানীয় নগর জেএম সিনিয়র মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা লুৎফর রহমান। বেশ কিছুদিন ধরেই মামুন ও মান্নান তাদের পাশের জমিটি দখলে নিতে মরিয়া হয়ে ওঠেন। এমনকি ওই অধ্যক্ষের প্রায় আট শতক জমি জোরপূর্বক দখলে নিয়ে সেখানে বাঁশের বেড়া দেন।

 

একপর্যায়ে ঘটনাটি জানার পর বুধবার সকালের দিকে অধ্যক্ষ লুৎফর রহমানের ছোট ভাই মাহবুবার রহমান ঘটনাস্থলে যান। একইসঙ্গে তার ভাইয়ের জায়গায় অবৈধভাবে দেওয়া বাঁশের বেড়া অপসারণ করেন এবং সেখানে গাছের চারা রোপণ করছিলেন। এই খবর পেয়ে প্রতিপক্ষ মামুন ও মান্নানের নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন ব্যক্তি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সেখানে উপস্থিত হয়ে মাহবুবকে মারধর করেন। তাকে উদ্ধারে এগিয়ে যান অধ্যক্ষ লুৎফর রহমান ও তার ছেলে কাহালু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত চিকিৎসক মশিউল আলম।

 

এ সময় প্রতিপক্ষের সশস্ত্র লোকজন তাদের উপর হামলে পড়ে। এমনকি তাদের বেধড়ক পেটায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান মাওলানা লুৎফর রহমান। পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যান। এরপর আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন তারা।

 

নিহতের চিকিৎসক ছেলে মশিউল আলম অভিযোগ করে বলেন, কোনো কিছু বুঝে উঠার আগেই প্রতিপক্ষের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা তাদের বেধড়ক মারপিট শুরু করেন। এসময় আমার বৃদ্ধ বাবা মাটিতে লুটিয়ে পড়লে সেখানেও তার মাথায় প্রচণ্ড আঘাত করা হয়। এতে ঘটনাস্থলেই বাবা লুৎফর রহমান মারা যান বলে অভিযোগ করেন তিনি।

 

 

শেরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাচ্চু বিশ্বাস জানান, ঘটনার পরপরই নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। সেই সঙ্গে ঘটনায় জড়িতদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com