বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন

উপজেলা আ’লীগ ও এমপির চাপে মনোনয়ন প্রত্যাহার, ঈশ্বরদীতে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নৌকার-৩ চেয়ারম্যান

উপজেলা আ’লীগ ও এমপির চাপে মনোনয়ন প্রত্যাহার, ঈশ্বরদীতে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নৌকার-৩ চেয়ারম্যান

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি :
ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামীলী ও স্থানীয় সাংসদ সদস্যের চাপে অবশেষে মনোনয়ন ফরম প্রত্যাহার করেছেন তিন ইউনিয়নের দলীয় বিদ্রোহী প্রার্থী। আর একটি ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থীকে মনোনয়ন ফরম জমা দিতেই দেওয়া হয়নি। এমন ঘটনাই ঘটেছে পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার পাকশী, সলিমপুর, দাশুড়িয়া ও মুলাডুলি ইউনিয়নে। বিদ্রোহীরা মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় চেয়ারম্যান পদে পাকশী, দাশুড়িয়া ও মুলাডুলি একক প্রার্থী হয়ে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। আর সলিমপুর ইউনিয়নে দলীয় বিদ্রোহী প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করলেও এখানে স্বতন্ত্রপ্রার্থী হিসেবে রয়েছেন তিন বারের চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমান। এই কারনে সলিমপুরে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামীলীগের নৌকা প্রার্থীর চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হওয়ার সুযোগ নেই। মনোনয়ন প্রত্যাহারকারীরা হলেন মুলাডুলি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দুর রহমান ফান্টু মন্ডল ও সলিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল কাদের ও দাশুড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহসভাপতি শামসুল আলম বাদশা মালিথা।

 

আজ (বৃহস্পতিবার) মনোনয়ন প্রত্যাহারের সময় শেষে সন্ধ্যায়  এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাহাপুর, পাকশী, দাশুড়িয়া নির্বাচনে দায়িত্ব প্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল হক।
উপজেলা আওয়ামীলীগ সুত্রে জানা যায়, স্থানীয় আওয়ামীলীগ থেকে প্রেরণকৃত মনোনয়ন প্রত্যাশিদের তালিকা কেন্দ্রে প্রেরন করা হয়েছিলো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনাসহ মনোনয়ন বোর্ড যাদের যোগ্য মনে করেছেন তাদের চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দিয়েছেন। তাই দলের প্রতিক নৌকার বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে যাওয়ার সুযোগ দলের নেতাদের নেই। এই কারণে মনোনয়ন পাকশী ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মোহাম্মদ বিন সালামকে মনোনয়ন ফরম দাখিল করতেই দেওয়া হয়নি। এই কারণে আগেই দলীয় প্রার্থী সাইফুজ্জামান পিন্টু একক প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন ফরম দাখিল করেন।

 

সুত্রগুলো আরো জানায়, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ মিন্টু ও স্থানীয় এমপি নুরুজ্জামান বিশ^াসের চেষ্টার পরেও বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে সলিমপুরে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মোঃ আব্দুল কাদের, দাশুড়িয়ায় শামসুল আলম বাদশা মালিথা,মুলাডুলিতে আব্দুর রহমান ফান্টু মনোনয়ন ফরম জমা দেন। এরপর চাপ দিয়ে সলিমপুর ও মুলাডুলির বিদ্রোহী প্রার্থীর মনোনয়ন ফরম প্রত্যাহার করানো হয়। আর শেষ দিনে দাশুড়িয়ায় বাদশা মালিথার মনোনয়ন ফরম প্রত্যাহার করানো হলো।

 

সুত্রগুলো আরো জানায়, এছাড়াও দলীয় প্রার্থী নৌকার বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে সাহাপুর ইউনিয়নে রয়েছে স্থানীয় এমপি নুরুজ্জামান বিশ্বাসে সের স্ত্রীর বড় ভাই মুলাডুলি ইউনিয়ন থেকে আসন্ন নির্বাচনে নৌকা প্রতিক পাওয়া আব্দুল খালেক মালিথার জামাই এমলাক হোসেন বাবু বিশ্বাস, লক্ষ্ণীকুন্ডা ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী আনিসুর রহমান শরিফের বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে সাবেক চেয়ারম্যান আনিসুল হক মোল্লা ও সাঁড়ায় নৌকার প্রার্থী এমদাদুল হক রানা সরদারের বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে পাবনা জেলা যুবলীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক জুয়েল চৌধুরী প্রার্থী হয়েছেন।
সম্প্রতি ঘোষিত ঈশ^রদী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নায়েব আলী বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ মিন্টু জানান, নৌকার বিরুদ্ধে দল যেই প্রার্থী হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
ঈশ^রদী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল হক জানান, আগামী ২৮ নভেম্বর ঈশ^রদীর সাত ইউনিয়নে তৃতীয়ধাপে নির্বাচন অনুষ্টিত হবে। এরমধ্যে তিনটিতে একক প্রার্থী হিসেবে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নৌকা প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। তাই তিন ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ভোট অনুষ্টিত হবে না। বাকি চারটিতে চেয়ারম্যান পদে ভোট অনুষ্টিত হবে। একই সঙ্গে সাত ইউনিয়নেই মেম্বার পদে ভোট অনুষ্টিত হবে।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com