বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:২০ পূর্বাহ্ন

মান্দায় ভোটারকে পেটালেন নৌকার প্রার্থী সুমন

মান্দায় ভোটারকে পেটালেন নৌকার প্রার্থী সুমন

মান্দা (নওগাঁ) প্রতিনিধি :

নওগাঁর মান্দায় মৎস্যজীবী পল্লীর দুই নারীসহ চার ভোটারকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে ভারশোঁ ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সুমনের বিরুদ্ধে। স্থানীয়দের অভিযোগ, নৌকায় ভোট দিতে অপরাগতা প্রকাশ করায় চেয়ারম্যান নিজের হাতেই তাঁদের মারধর করেন। রোববার রাত ৮টার দিকে উপজেলার ভারশোঁ ইউনিয়নের সগুনিয়া গ্রামে মারধরের এ ঘটনা ঘটে।

 

মারধরে আহতরা হলেন সগুনিয়া গ্রামের আব্দুল গফুর (৫০), হালিমা বেগম (৪৫), খতিব সরদার (৩০) ও সায়েরা বিবি (৫০)। তাঁদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

 

সগুনিয়া গ্রামের বাসিন্দা খোদাবক্স সরদার জানান, রোববার সন্ধ্যার পর সগুনিয়া গ্রামের মোড়ে নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী সুমনের বৈঠক ছিল। রাত ৮টার দিকে দলবল নিয়ে সুমন সেখানে উপস্থিত হন। এ সময় গ্রামের আব্দুল গফুরের নিকট ভোট প্রার্থনা করলে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী আলতাজ উদ্দিনকে ভোট দেওয়ার কথা জানান। এতে সুমন ক্ষিপ্ত হয়ে তাঁকে মারপিট শুরু করেন। তাঁকে বাঁচাতে স্ত্রী হালিমা বেগম, ছেলে খতিব সরদার ও ভাবি সায়েরা বিবি এগিয়ে তাঁদেরও পিটিয়ে জখম করা হয়।

 

স্থানীয়দের অভিযোগ, চেয়ারম্যান প্রার্থী সুমনের ক্যাডার বাহিনি রামদা, লাঠি-সোটাসহ বিভিন্ন দেশিয় অস্ত্র নিয়ে রোববার রাতে গ্রামটিতে তান্ডব চালান। এ সময় এলাকাবাসীর মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে চেয়ারম্যান সুমন তাঁর ক্যাডার বাহিনি নিয়ে বলাক্ষেত্র সুইসগেট এলাকায় মৎস্যজীবীদের বেশ কয়েকটি নেট জালসহ বসবাসের একটি অস্থায়ী ঘর ও আসবাসপত্র আগুনে পুড়িয়ে দেয়। বিভিন্ন প্রজাতির অন্তত তিন মণ মাছ লুট করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন মৎস্যজীবীরা।

 

ভারশোঁ ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সগুনিয়া গ্রামের বাসিন্দা শাহজাহান আলী জানান, গ্রামের আব্দুল গফুরসহ কয়েকজনকে মারধর করেছে নৌকার প্রার্থী সুমন। এ সময় তাঁর ক্যাডার বাহিনির সশস্ত্র তান্ডবে গ্রামে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ভোটারদের মারধর ও গ্রামে আতঙ্ক ছড়ানো সঠিক হয়নি বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

 

মৎস্যজীবী আতাউর রহমান বলেন, রাত ৯টার দিকে চেয়ারম্যান সুমনের বাহিনি সুইসগেট এলাকায় এসে কয়েকটি নেটজালসহ তাঁদের থাকার অস্থায়ী ঘর আগুনে পুড়িয়ে দেয়। এ সময় ভয়ে নৌকাতে চড়ে তাঁরা নদীর ওপারে চলে যান। পরে সুমনের লোকজন বিভিন্ন প্রজাতির অন্তত ৩ মণ মাছ লুট করে চলে যায়।
ভারশোঁ ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী আলতাজ উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, আমার কর্মি ও ভোটারদের দফায় দফায় মারধর ও বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছেন নৌকার প্রার্থী সুমন ও তাঁর লোকজন। গত ৭ নভেম্বর সন্ধ্যায় পাকুড়িয়া শহীদ বাজার এলাকায় দুই কর্মিকে পিটিয়ে জখম করেছে তাঁর ক্যাডার বাহিনি। ভোটারদের কেন্দ্রে না যেতেও ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে।

 

এ প্রসঙ্গে নৌকার প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সুমন বলেন, ‘সগুনিয়া গ্রামে ভোটের প্রচারণা করতে গেলে গ্রামবাসী আমাকেসহ কর্মিদের অবরুদ্ধ করে রাখেন। সংবাদ পেয়ে অন্য এলাকা থেকে কর্মিরা গিয়ে আমাদের উদ্ধার করে নিয়ে যান। ভোটারদের মারধর, মৎস্যজীবীদের জাল পোড়ানো, মাছ লুট ও গ্রামে তান্ডব চালানোর অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি বলেন, গ্রামবাসী আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন।’
মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কেউ অভিযোগ করেননি।

 

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com