মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৫৭ অপরাহ্ন

পবা-মোনপুর ইউপি নির্বাচন : দুর্নীতিবাজদের হাতে নৌকা

পবা-মোনপুর ইউপি নির্বাচন : দুর্নীতিবাজদের হাতে নৌকা

নিজস্ব প্রতিনিধি :

আগামী ২৮ নভেম্বর সারাদেশে তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এই নির্বাচনে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করতে চূড়ান্ত মনোনয়ন শেষ করেছেন আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়। এরই মধ্যে দল থেকে মাদকাসক্ত, একাধিক মামলার আসামি ও রাজনীতির আঁতুড়ঘর থেকে বেরিয়ে নৌকার মাঝির দায়িত্ব পাওয়া নিয়ে চরম সমালোচনার মুখে পড়েছেন রাজশাহী-৩ আসনের (পবা-মোহনপুর) সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন।

জানা যায়, মাত্র কয়েক দিন আগে তৃণমূলের একজন ত্যাগী নেতা ও সাংসদের কথোপকথনের অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়। এ নিয়ে তৃণমূল নেতাকর্মীদের মাঝে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এমপি ভবিষ্যতে ক্ষমতার রাজনীতির রোডম্যাপ ঠিকঠাক রাখতে বিকল্প নেতৃত্ব সৃষ্টি করতে চান না। বরং রাজনীতিকে পরিবারতন্ত্রে রূপ দিতে যে যার মতো আস্থাভাজনদের নিয়ে গড়ে তুলেছেন নিজস্ব শক্তির নিশ্ছিদ্র বলয়। দলের গুরুত্বপূর্ণ পদ ছাড়াও স্থানীয় সরকারের নির্বাচনে বহাল এই নিখুঁত কারুকাজ। ত্যাগীদের ত্যাগ করে বসিয়ে দিচ্ছেন নিজের ধ্বজাধারীদের।

এ সুবাদে বিতর্কিতরাও এমপিদের আশীর্বাদে যেখানে-সেখানে দলের গুরুত্বপূর্ণ পদপদবিতে শক্ত আস্তানা গেড়ে বসছেন। কেউ কেউ মনোনয়ন পেয়ে স্থানীয় পর্যায়ে জনপ্রতিনিধিও হয়েছেন। এসব কাজে সঙ্গী হাইব্রিড ও বিতর্কিতরা। যারা এখন এমপি আয়েন উদ্দিনের অতি আস্থাভাজন। নিরঙ্কুশ আধিপত্য প্রতিষ্ঠায় তিনি নিজের ভাইকে বানিয়েছেন ঘাসিগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান। ভগ্নিপতি আব্দুস সালাম’কে মোহনপুর আওয়ামী লীগের সভাপতি। তবে এমপি আয়েন উদ্দিন সংগঠনের কোনো ধার ধারেন না। সাধারণ লোক তো দূরের কথা, হামলা-মামলার ভয়ে দলের পদধারী কোনো নেতাও আয়েনের অপকর্মের বিষয়ে মুখ খুলতে রাজি নন বলে জানালেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেত।

তথ্যসূত্রে জানা যায়, গত ২১ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) বিকালে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকারের জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় একটি চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ হয়। এই প্রার্থীতা ঘোষনার পর থেকে তৃনমুল নেতাকর্মীদের মাঝে চাপা ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা যায়।

কারণ হিসেবে তৃণমূল নেতারা জানান, স্থায়ী এমপিদের স্বজনপ্রীতি ও অর্থনৈতিক সুবিধায় দলকানারাই পেয়েছে এবারের মনোনয়ন।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, রাজশাহী-৩ আসনের মোহনপুর উপজেলার ৪নং মৌগাছী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থীর দলীয় মনোনয়ন নৌকা পেয়েছেন আল-আমীন বিশ্বাস। মাত্র দেড় লাখ টাকার সম্পদ নিয়ে বা দেখিয়ে ২০১৬ সালের নির্বাচনে আসেন চেয়ারম্যান আল-আমীন বিশ্বাস। মাত্র চার বছরের ব্যবধানে সেই সম্পদ বেড়ে হয়েছে কয়েক কোটি টাকা। এই আল-আমীন চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে রয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশনে অভিযোগ। তার বিরুদ্ধে রয়েছে একাধিক ছিনতাই ও অস্ত্র মামলা। শুধু তাই নয়, তার বিরুদ্ধে রয়েছে মাদক কারবারে সম্পৃক্ততা ও সেবনের অভিযোগ। তার বিরুদ্ধে জমি জবরদখল, প্রকল্পের টাকা দুর্নীতিসহ পাহাড় সমান অভিযোগ রয়েছে।

এই দুর্নীতিবাজ চেয়ারম্যানের বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সরকার দলের একাধিক ব্যক্তি বলেন, মাত্র কয়েক মাস আগেও একটি প্রকল্পের ২৭ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। পরে স্থানীয় সরকার রাজশাহী বিভাগের উপ-পরিচালক ড. চিত্রলেখা নাজনীন তদন্ত করে লাখ লাখ টাকার হেরফের পান এবং তাকে প্রকল্পের সমস্ত টাকা নিয়ে সেবারের মতো মাফ করেন।

অপরদিকে ৮নং বড়গাছী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে দলীয় নৌকা পেয়েছেন শাহাদাত হোসেন সাগর। পিতা এমদাদুল হকের বদৌলতে তিনি এমপির আশীর্বাদপুষ্ট হয়ে বনে যান নৌকার মাঝি। এ ব্যাপারে তৃণমূলে চলছে নানা গুঞ্জন।

এ বিষয়ে ৪নং মৌগাছী ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রার্থী আল-আমীন বিশ্বাসের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। কথা বলতে এমপি আয়েন উদ্দিনকে ফোন দিলে তিনিও ফোন রিসিভ করেননি।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com