বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ০২:০০ অপরাহ্ন

লিবিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন : ক্ষমতার দৌড়ে টিকে রইলেন গাদ্দাফির ছেলে

লিবিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন : ক্ষমতার দৌড়ে টিকে রইলেন গাদ্দাফির ছেলে

অল নিউজ ডেস্ক :
লিবিয়ায় আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে দেশটির প্রয়াত স্বৈরশাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফির ছেলে সাইফ আল-ইসলাম গাদ্দাফির প্রার্থিতা পুনর্বহাল করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) লিবিয়ার একটি আদালত তাকে প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে বৈধ ঘোষণা করেন। এর ফলে আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে সাইফ গাদ্দাফির সামনে আর কোনো বাধা থাকলো না।

 

বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা। এর আগে সপ্তাহখানেক আগে সাইফ গাদ্দাফিকে আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করেছিল দেশটির ইলেকশন কমিশন। ফলে সংঘর্ষপীড়িত এই দেশটিতে উত্তেজনা বৃদ্ধি পায়।

 

প্রয়াত মোয়াম্মার গাদ্দাফির ছেলের আইনজীবী খালেদ আল-জাইদি জানিয়েছেন, সাইফ আল-ইসলাম গাদ্দাফি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করতে পারবেন বলে বৃহস্পতিবার লিবিয়ার একটি আদালত রায় দিয়েছেন। দেশটিতে এক দশকের বিশৃঙ্খলা অবসানের লক্ষ্যে একটি নির্বাচন পরিচালনার বিষয়ে বিতর্ক তীব্র হওয়ায় আদালত ওই রায় দেয়।

 

আগামী ২৪ ডিসেম্বর লিবিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। সপ্তাহখানেক আগে সাইফ গাদ্দাফিকে অযোগ্য ঘোষণা করে হলে, তিনি এর বিরুদ্ধে আপিল করেন। তবে যোদ্ধারা আদালত অবরুদ্ধ করে রাখায় সেই আপিল নিষ্পত্তি হতে বেশ কয়েকদিন বিলম্ব হয়। এটিকে নির্বাচনে ব্যাপক অস্থিরতার পূর্বাভাস বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

 

লিবিয়ার নির্বাচন কমিশন বলেছে, বৃহস্পতিবার অন্য এক ঘটনায় সশস্ত্র ব্যক্তিরা দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় পাঁচটি নির্বাচনী কেন্দ্রে হামলা চালিয়ে ব্যালট চুরি করেছে। মূলত যুদ্ধরত পূর্ব ও পশ্চিম অংশের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরীর জন্য একটি ঐক্যবদ্ধ সরকার গঠনের চেষ্টা করতেই এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

নির্বাচন কমিশনের দাবি ছিল, সাইফ আল-ইসলাম গাদ্দাফি আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তি। ২০১১ সালে মুয়াম্মার গাদ্দাফির বিরুদ্ধে আন্দোলনের সময় তিনি গণহত্যা চালিয়েছিলেন বলে অভিযুক্ত হওয়ার পর ২০১৫ সালে দেশটির রাজধানী ত্রিপোলীর একটি আদালত তাকে মৃত্যুদণ্ড দেয়।

 

লিবিয়ার আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে ৯৮ জন লিবীয় নাগরিক নিবন্ধন করেছিলেন। এর মধ্যে সাবেক স্বৈরশাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফির ছেলে সাইফ আল-ইসলাম গাদ্দাফিসহ ২৫ জনের প্রার্থিতা বাতিল করে দেশটির নির্বাচন কমিশন।

 

তবে অযোগ্য ঘোষিত সবাই একটি বিশৃঙ্খল আপিল প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে গিয়েছেন। সাইফ আল-ইসলাম গাদ্দাফির প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার বিষয়টি সামনে এলেও এখনও প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়নি। যদিও নির্বাচনের আগে আর মাত্র তিন সপ্তাহ সময় বাকি রয়েছে।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com