বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:০৪ অপরাহ্ন

ফ্ল্যাটে তরুণীকে রেখে দৌড়ে পুলিশের হাত থেকে বাঁচলেন মাটিকাটার চেয়ারম্যান

ফ্ল্যাটে তরুণীকে রেখে দৌড়ে পুলিশের হাত থেকে বাঁচলেন মাটিকাটার চেয়ারম্যান

মো: সামিউল ইসলাম, রাজশাহী প্রতিনিধি :

ফ্ল্যাটে এক তরুণীকে নিয়ে ঢুকেছিলেন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান সোহেল রানা। খবর পেয়ে পুলিশ যায়। চেয়ারম্যান তখন গোসল সেরে বের হচ্ছিলেন। পুলিশ জানতে চাইল, আর কে আছে ফ্ল্যাটে। চেয়ারম্যান বললেন, কেউ নেই তো। তল্লাশি শুরু করল পুলিশ। ফ্ল্যাটের বাথরুমে তখন পাওয়া গেল ২২ বছরের এক তরুণীকে।

 

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজশাহী নগরীর নিউমার্কেট এলাকায় ‘থিম ওমর প্লাজা’ নামের একটি বিপণিবিতানের ওপরের আবাসিক ফ্লোরে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ফ্ল্যাট থেকে তরুণীকে বের করলেও চেয়ারম্যান সোহেল রানাকে ধরতে পারেনি। থিম ওমর প্লাজার ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরায় দেখা গেছে, ভবনের সিঁড়ি বেয়ে দৌড়ে পালিয়েছেন সোহেল।

 

গত ১১ নভেম্বর সোহেল রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার মাটিকাটা ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা। ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হলেও তাঁকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়নি। এলাকায় গুঞ্জন আছে, মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে দলীয় নেতাকর্মীদের অনেকেই সোহেলের পক্ষে কাজ করে নৌকা ডুবিয়েছেন।

 

থিম ওমর প্লাজায় সোহেলের ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়েছিলেন নগরীর শিরোইল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আকবর আলী। তিনি জানান, সোহেলের গ্রামের বাড়ি উজানপাড়া। আর ওই তরুণীর বাড়ি পাশের গ্রাম মাটিকাটায়। ফ্ল্যাটে স্ত্রী-সন্তান না থাকায় সোহেল ওই তরুণীকে নিয়ে যান। একসঙ্গেই তাঁরা ভেতরে যান। ঢোকার সময় ওই তরুণী পরে ছিলেন বোরকা। পুলিশ যখন ফ্ল্যাটে ধরে তখন তিনি বোরকা পরে ছিলেন না। লুকিয়ে ছিলেন বাথরুমে। ফ্ল্যাট থেকে দুজনকে বের করে থানায় নেওয়া হবে, ঠিক এমন সময় দৌড়ে সোহেল পালিয়ে গেছেন। তাই তাঁকে ধরা সম্ভব হয়নি।

 

আটকের পর ওই তরুণী পুলিশের কাছে প্রথমে দাবি করেন, তাঁর জন্ম নিবন্ধন সনদে ভুল আছে। সেটি ঠিক করে দেওয়ার জন্য সোহেল তাঁকে ফ্ল্যাটে আনেন। তবে সোহেল চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বই গ্রহণ করেননি। তাঁর শপথও হয়নি। নিবন্ধন সনদ তিনি ঠিক করতেই পারবেন না। পরে জেরার মুখে ওই তরুণী সোহেলের সঙ্গে আশালীন কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন। এ কারণে দুজনের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করেছে। শুক্রবার ওই তরুণীকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। সোহেলকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

 

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, এক যুগ আগেও সোহেল রানা ছিলেন একজন বাসের হেলপার। তারপর হেরোইনের ব্যবসায় জড়িয়ে বিপুল সম্পদের মালিক হয়েছেন। রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনের সাংসদ ওমর ফারুক চৌধুরীর করা থিম ওমর প্লাজায় বিলাসবহুল ফ্ল্যাট কিনেছেন। সেখানে তাঁর দোকানও আছে। কয়েকটি ট্রাকসহ আরও অনেক সম্পদের মালিক গোদাগাড়ী থানা পুলিশের তালিকাভুক্ত এই মাদক কারবারি।

 

বছর দুয়েক আগে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান জোরদার হলে তিনি আত্মগোপন করেছিলেন। তবে মাটিকাটা ইউপি নির্বাচন ঘনিয়ে এলে দলীয় মনোনয়ন পেতে তোড়জোড় শুরু করেন। মনোনয়ন না পেয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হন। ছড়ান কাড়ি কাড়ি টাকা। জিতেও যান। তবে ভোটে জেতার এক মাস না পেরোতেই নারী কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়লেন তিনি। এসব বিষয়ে কথা বলার জন্য বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কয়েকদফা ফোন করা হলেও তিনি ধরেননি।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com