মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:০০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
হরিমোহন স্কলে পদোন্নতিপ্রাপ্তদ শিক্ষকদের সংবর্ধনা ওমিক্রন ঠেকাতে শিবগঞ্জে মাস্ক বিতরণ শিবগঞ্জে বীরমুক্তিযোদ্ধা সনু লাঞ্ছিতের ঘটনায় তদন্ত শুরু শিবগঞ্জে বিভিন্ন ভাতা ভোগীদের আয় বৃদ্ধিমূলক ব্ল্যাকবেঙ্গল ছাগল ও দেশি মুরগি বিষয়ক প্রশিক্ষণ সিভিল সার্ভিসে ১০বছর পদার্পণ, শিবগঞ্জ অফিসার্স ক্লাবের শুভেচ্ছা একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন শেষ হচ্ছে আজ সিলেট সানরাইজার্সে খেলবেন সিমন্স নিউজিল্যান্ড মিশন শেষে দেশে ফিরলেন মুমিনুলরা শিবগঞ্জে সাদ্য যোগদানকৃত ডিসি’র গুচ্ছগ্রাম পরিদর্শন ও কম্বল বিতরণ নবীগঞ্জে প্রশাসনের উদ্যােগে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ন প্রকল্পের জন্য সরকারি খাস জমি উদ্ধার
আ.লীগ  প্রার্থীর ভয়ে পালিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী

আ.লীগ  প্রার্থীর ভয়ে পালিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী

মো: সামিউল ইসলাম, রাজশাহী প্রতিনিধি :
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার আউচপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর অব্যাহত হুমকী ও হামলার কারণে স্বাভাবিক প্রচারণা চালাতে পারছেন না স্বতন্ত্র প্রার্থী। তিনি গোপনে প্রচারণা চালানোর চেষ্টা করলেও বাধার সম্মুখীন হচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন। বিগত নির্বাচনের ন্যায় প্রাণহানির আশংকাসহ সুষ্ঠু ভোট নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন। শুক্রবার বিকেলে বাগমারা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রহিম এই অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলন থেকে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য প্রশাসনের তৎপরতা বাড়ানোর দাবি জানান।

 

এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান চেয়ারম্যান সরদার জান মোহাম্মদ। দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে দলের ইউনিয়ন কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক আবদুর রহিম স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন। পরে দল থেকে তাঁকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। পঞ্চম ধাপে আগামি ৫ জানুয়ারি আউচপাড়াসহ উপজেলার ১৬টি ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আবদুর রহিম অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচনে মনোনয়নের দাখিলের পর থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সরদার জান মোহাম্মদ ও তাঁর লোকজন বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছেন। হুমকি উপেক্ষা করে কৌশলে প্রচারণা অব্যাহত রাখেন। তবে প্রতিনিয়ত আওয়ামী লীগ প্রার্থীর লোকজনের বাধার সম্মুখীন হচ্ছেন। ইউনিয়নের মুগাইপাড়া, খোদাপুর, কোন্দাসহ বিভিন্ন স্থানে স্থাপন করা তাঁর আনারস প্রতীকের নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়। তাঁর পক্ষে কর্মীরা প্রচারণা চালাতে গেলে সরাসরি তাঁদের বাঁধা প্রদান ছাড়াও হামলা করা হচ্ছে। গত বূুধবার রাতে ও বৃহস্পতিবার দিনে নৌকার প্রার্থীর ২০-৩০জন ক্যাডারেরা কোন্দা, খালগ্রামে মোটরসাইকেল নিয়ে মহড়া দিয়ে নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা চালিয়ে আসবাবপত্র ভাঙচুর করে। এসব ক্যাডারদের মধ্যে বেশিরভাগই বহিরাগত। এসময় তাঁর কর্মীদের ওপর ধারাল অস্ত্র নিয়ে হামলাও করা হয়েছে। একটি অফিসে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার সকালে খালগ্রামে চেয়ারম্যান সরদার জান মোহাম্মদ নিজ হাতে জামাল উদ্দিন নামের একজন কর্মীকে পিটিয়ে জখম করেছেন। তাঁর ব্যবহার করা মোটরসাইকেলও ভেঙে ফেলেছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত কর্মীকে উদ্ধার করে। তাঁদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

 

 

তিনি অভিযোগ করে আরও বলেন, গত ২০১৬ সালের নির্বাচনে এই ইউনিয়নে (আউচপাড়া) বর্তমান চেয়ারম্যান সরদার জান মোহাম্মদের লোকজনের সঙ্গে পুলিশ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর ত্রিমুখী সংঘর্ষে চারজন নিরীহ কর্মী নিহত হয়েছিলেন। ওই ঘটনায় নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। পরের নির্বাচনে তিনি নির্বাচিত হন। এবারো বিশৃংখলা তৈরি করে নির্বাচন বানচালের চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত প্রবীণ শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন অভিযোগ করে বলেন, তাঁরা স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার জন্য প্রতিনিয়ত হুমকির শিকার হচ্ছেন তিনি গত ২০১৬ সালের ন্যায় এবারও সহিংসতা সৃষ্টির পাঁয়তারা করছেন। তাঁরা সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্নভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানাচ্ছেন। সংবাদ সম্মেলনে ৮ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান, সাবেক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, সাবেক সভাপতি মফিজ উদ্দিন, সমর্থক রাশেদুল ইসলাম, এনামুল শেখ, আব্দুল জলিল কবিরাজ, ফজলু রহমান, আফজাল হোসেন সহ এলাকার শিক্ষক, আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীসহ অর্ধশত ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন।

 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীরা কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, তাঁরা স্বাভাবিক চলা ফেরা করতে ও প্রচারণা

চালাতে পারছেন না। পালিয়ে পালিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন বলে জানান। সরদার জান মোহাম্মদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরকসহ চারটি মামলা রয়েছে। অথচ দাপিয়ে তিনি প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। পুলিশ এসব মামলা থাকার কথা স্বীকার করেছেন।
এসব বিষয়ে জেলা প্রশাসক, থানা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

 

বাগমারা থানার ওসি মোস্তাক আহম্মেদ বলেন, অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পুলিশ ইউনিয়নে বিশেষ নজর রাখছে।

এই বিষয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সরদার জান মোহাম্মদ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুর রহিমের লোকজনই তাঁদের নির্বাচনী কার্যালয় ও মোটরসাইকেল ভাঙচুর করেছে।

 

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com