রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩৮ অপরাহ্ন

রাবির সাবেক উপাচার্যের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশনা ৬ সপ্তাহ স্থগিত

রাবির সাবেক উপাচার্যের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশনা ৬ সপ্তাহ স্থগিত

অল নিউজ ডেস্ক :
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষক নিয়োগে অনিয়ম ও ক্ষমতার অপব্যবহার হয়েছে কিনা তদন্ত করে ৬০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য হাইকোর্ট দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যানকে যে নির্দেশনা দিয়েছিল, সেটি ছয় সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেছেন আপীল বিভাগের চেম্বার জজ আদালত।

 

কনজিউমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) পক্ষে জনৈক মোবাশ্বের হোসেন দায়েরকৃত রিটের ছয় নম্বর বিবাদী রাবির সাবেক ভিসি অধ্যাপক আব্দুস সোবহানের আবেদন ও তার ওপর শুনানির প্রেক্ষিতে আজ রবিবার আপীল বিভাগের চেম্বার জজ বিচারপতি ওবায়দুল হাসান এই স্থগিতাদেশ দেন।

 

অধ্যাপক আব্দুস সোবহানের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী শাহ মঞ্জুরুল হক। অপরদিকে রিট পিটিশনার ক্যাবের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট হাসান দে আজিম।
এর আগে গত ৫ মে ২০২১ তারিখে রাবির সাবেক ভিসি অধ্যাপক আব্দুস সোবহানের ১৩৮ শিক্ষক-কর্মকর্তা, কর্মচারী নিয়োগ এবং ২০১৭ সালের শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা বাতিল চেয়ে সুপ্রীমকোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে কনজিউমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) পক্ষে স্থপতি মোবাশ্বের চৌধুরীর রিট আবেদন করেন।

 

রিটে বিবাদী করা হয় সরকারের পক্ষে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান, দুদকের চেয়ারম্যান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার ও সাবেক ভিসি প্রফেসর আব্দুস সোবহানকে।

 

পিটিশনারের পক্ষে ১৩৮ নিয়োগ এবং ২০১৭ সালের শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা বাতিল চাওয়া হয়। এই রিটের ওপর গত ৬ সেপ্টেম্বর শুনানি শেষে হাইকোর্টের বিচারপতি মজিবর রহমান মিয়া ও বিচারপতি কামরুল হোসাইন মোল্লাহ এর দ্বৈত ডিভিশন বেঞ্চ পিটিশনারের আবেদনক্রমে তিন নম্বর প্রতিপক্ষ দুদক চেয়ারম্যানকে রাবিতে শিক্ষক নিয়োগে অনিয়ম ও ক্ষমতার অপব্যবহার হয়েছিল কিনা, তদন্ত করে ৬০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশনা দেন।

 

একই সঙ্গে গত ৫ মে ২০২১ তারিখের ১৩৮ নিয়োগ এবং ২০১৭ সালের শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা তিন মাসের জন্য স্থগিত ঘোষণা করেন। এবং আগামী ১৪ নভেম্বরের মধ্যে একটি কমপ্লায়েন্স রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন।

 

এ বিষয়ে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে সিনিয়র আইনজীবী শাহ মঞ্জুরুল হক বলেন, হাইকোর্ট বিভাগ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসিকে জড়িয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনকে যে আদেশ দিয়েছিল, আমরা আপীল বিভাগের চেম্বার জজের আদালতে তা স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছিলাম। রবিবার আমাদের আবেদনের ওপর শুনানি শেষে বিজ্ঞ আদালত দুর্নীতি দমন কমিশনের ওপর হাইকোর্ট বিভাগের নির্দেশনা ছয় সপ্তাহের জন্য স্থগিত ঘোষণা করেছেন। ফলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক আব্দুস সোবহানকে তদন্তের নামে হয়রানি করতে পারবে না দুদক।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com