শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৭:৪৮ অপরাহ্ন

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন নির্বাচন : অনুমোদনহীন সদস্য অন্তর্ভুক্তির অভিযোগ

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন নির্বাচন : অনুমোদনহীন সদস্য অন্তর্ভুক্তির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবদেক :

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন, রাজশাহীর আসন্ন নির্বাচনে দুই শতাধিক অ-অনুমোদিত সদস্যদের ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্তি দেখিয়ে বর্তমান মেয়াদের ক্ষমতাসীন কমিটির পক্ষে নির্বাচনে জয় ছিনিয়ে নেওয়ার সুস্পষ্ট অভিযোগ প্রতিপক্ষের।

 

সুদীর্ঘ ৩৭ বছরের এই সেবামুলক প্রতিষ্ঠানটিতে প্রথম বারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আগামী ২৯ অক্টোবর শুক্রবার নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে এবং গত ২০ অক্টোবর এই নির্বাচনে দুইটি প্যানেল তাদের মনোনয়ন পত্র জমা দেন সব কয়টি মনোনয়ন বৈধ বলে বিবেচিত করেন নির্বাচন কমিশন ।

 

ন্যাশনাল হাট ফাউন্ডেশনের গঠনতন্ত্রের ধারা -৪ অনুযায়ী এই সংগঠনের সদস্য পদ লাভের বিষয়টি সুস্পষ্ট ভাবে উল্লেখ আছে। এই ধারায় বলা হয়েছে ” সংগঠনের সদস্য পদ নিতে হলে আবেদনকারীর আবেদনটি নির্বাহী কমিটির সভায় অনুমোদন লাভের পরই তিনি কেবল মাত্র সদস্যপদ লাভ করতে পারবেন।

 

অনুসন্ধানে জানা যায় প্রায় দুই শতাধিক সদস্যর আবেদন নির্বাহী কমিটির সভায় অনুমোদন না করেই বর্তমান কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বিধি বহির্ভূত ভাবে সদস্য পদ প্রদান দেখিয়ে চুড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রনয়ণ করেছে ক্ষমতাসীনরা। এমনকি গত ২৪/৯/২০২১ তারিখে নির্বাচনের আগে অনুষ্ঠিত শেষ সভায় খসড়া ভোটার তালিকারও অনুমোদন করা হয়নি।

তথ্য প্রমানে দেখা গেছে ২০১৮ সালের ১৩ জুলাই অনুষ্ঠিত নির্বাহী কমিটির চতুর্থ সভায় “গঠনতন্ত্র সংশোধনীর জন্য গঠিত উপ-কমিটির সুপারিশ না পাওয়া পর্যন্ত নতুন আজীবন সদস্য পদ অন্তর্ভুক্তি স্থগিত থাকবে। উল্লেখ্য যে আজীবন সদস্যগনই এই সংগঠনের ভোটার হিসেবে বিবেচিত হবেন।

 

২০১৭ সালের ২০ অক্টোবর সর্বশেষ নির্বাচনটি হয়েছিলো সিলেকশনের মাধ্যমে সংগঠনটিতে তখন আজীবন সদস্য সংখ্যা ছিলো ৫৬৪ জন তবে ভোটার তালিকায় এর সংখ্যা ছিলো ৪৮০ জন ,মৃত্যু ব্যক্তিদের নাম ভোটার তালিকা থেকে বাদ রাখা হয়। গঠনতন্ত্র মোতাবেক এই কমিটির মেয়াদ ছিলো তিন বছর।

 

বর্তমান মেয়াদের কমিটির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়েছিলো ২০১৭ সালের ৩ নভেম্বর। সে হিসেব অনুযায়ী গত ২ নভেম্বর ২০২০ তারিখে এই কমিটির মেয়াদ শেষ হবার কথা থাকলেও মহামারী করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারণে গঠনতন্ত্রের ধারা মোতাবেক গত ২১/১১/২০২০ তারিখে নির্বাহী কমিটির ৭ম সভায় আরও ছয়মাস মেয়াদ বাড়ানো হয়েছিলো। কিন্তু পরবর্তীতে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ তথা কেন্দ্রীয় কমিটি আরও ছয় মাস কমিটির মেয়াদ বৃদ্ধি করে তা আগামী ৩ নভেম্বর পর্যন্ত করা হয়।

 

চলমান নির্বাহী কমিটির চার বছর মেয়াদ কালে মোট ৯ টি সভা অনুষ্ঠিত হয়। এর প্রথম চারটি সভায় নতুন সদস্য অন্তর্ভুক্ত করার জন্য আলোচ্য সূচি প্রনয়ণ করা হয় এবং উক্ত চারটি সভায় মোট ১০৭ জন সদস্যর জন্য করা আবেদন অনুমোদন করা হয়েছিলো, সে মোতাবেক সর্বশেষ অন্তর্ভুক্তি ধরলে মোট আজীবন সদস্যর সংখ্যা ৬৭১ জনে দাঁড়ায় ।

 

কিন্তু গত ১৬/১০/২০২১ তারিখে নির্বাচন কমিশন চূড়ান্ত ভোটার তালিকায় সদস্য সংখ্যা দেখানো হয়েছে ৮৯০ জন ফলে এটি সুস্পষ্ট ভাবে প্রমানিত হয় যে ৮৯০-৬৭১= ২১৯ জন সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত গঠনতন্ত্র মোতাবেক বিধি সম্মত হয়নি এই ভোটার গুলোর উপর ভর করেই নির্বাচনে জয়লাভের স্বপ্ন দেখছেন ক্ষমতাসীনরা ।

এই সকল অনিয়মের বিষয় জানতে ক্ষমতাসীন কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডাঃ রওসনের সাথে যোগাযোগ করা হইলে তিনি সকল অভিযোগ অস্বীকার করেন ।

 

ক্ষমতাসীন কমিটির নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চলমান নির্বাহী কমিটির একজন সদস্য পুরো ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেছেন যে তিনি সব কয়টি সভায় উপস্থিত থেকেছেন এবং চতুর্থ সভার পর আর কোন সভায় নতুন সদস্য অন্তর্ভুক্ত করার কোন এজেন্ডা ছিলোনা এবং নতুনভাবে কোন সদস্যপদ লাভের জন্য কারো আবেদনও অনুমোদন দেওয়া হয়নি।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com