শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:৩৪ অপরাহ্ন

বাগমারায় চাষকৃত পুকুরে সুপারী গাছ ফেলে মাছ নিধনের অভিযোগ

বাগমারায় চাষকৃত পুকুরে সুপারী গাছ ফেলে মাছ নিধনের অভিযোগ

মো: সামিউল ইসলাম, রাজশাহী প্রতিনিধি :

রাজশাহীর বাগমারায় মাহাবুর রহমানের চাষকৃত পুকুরে সুপারী গাছ ফেলে মাছ নিধনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার সকালে পুকুরের মালিক বাগমারা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে।

 

অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার বাসুপাড়া ইউনিয়নের হলুদঘর গ্রামে প্রায় ৩ বছর যাবত একটি পুকুর লীজ গ্রহণ করে মাছচাষ করে আসছিল মাহাবুর রহমান। নিষেধ করা সত্তে¡ও তার চাষকৃত সেই পুকুরে বেশ কয়েকদিন ধরে ১০-১২টি সুপারী গাছ ফেলে দেয়। পুকুরের পানিতে পচে বিষক্রিয়ার সৃষ্টি হয়ে সকল মাছ মরতে থাকে। পরে পুকুরে ফেলা সেই সুপারী গাছ উঠাতে গেলে আফসার আলী নিষেধ করে এবং ভয়ভীতি দেখায়। বর্তমানে মাহাবুর রহমানের সেই পুকুরে কোন মাছ বেঁচে নেই। দুই দিন ধরে সকল মাছ পচে পানিতে ভেসে রয়েছে। এতে প্রায় পাঁচ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

মাহাবুর রহমান জানান, আমি গরীব মানুষ লীজকৃত এই পুকুরটাই আমার সম্বল ছিল। আড়াই মণ মাছের ধানি পোনা ছেড়েছি পুকুরে। সেই পোনামাছ বড় হতে শুরু করেছে। এমন সময় পুকুরে সুপারী গাছ ফেলে আমার সব স্বপ্ন নষ্ট করে দিয়েছে। আমাকে নিঃস্ব করে দিয়েছে।

 

অভিযোগের ভিত্তিতে পুকুরে গিয়ে দেখা যায় রুই, কাতলা, মৃগেল, জাপানী, সিলভার সহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ পচে গিয়ে পানিতে ভাসছে। মাছগুলো পচে ভেসে উঠায় বিক্রয়ের উপযোগী নেই।

 

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা রবিউল করিম বলেন, মাছচাষ করতে সব সময় পরিষ্কার পানি দরকার। অনেক মাছ আছে যেগুলো দূষিত পানিতেও চাষ করা গেলেও সকল মাছ চাষকরা যায় না। সুপারী গাছ অত্যন্ত খারাপ। অতিরিক্ত সুপারী গাছ কয়েকদিন পানিতে থাকায় তা পচে বিষক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। সে কারনে মাছগুলো হয়ত মরে ভেসে উঠেছে। তবে পুকুরের পানিতে ফেলার সাথে সাথে তুলে ফেলা হলে এতোটা ক্ষতি হতো না।

 

এ ব্যাপারে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাক আহম্মেদ বলেন, পুকুরে সুপারী গাছ ফেলে মাছ নিধনের ঘটনায় একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com