বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৬:৩৬ অপরাহ্ন

এ মাসেই রাজশাহীর বাজারে মিলবে গুটি-গোপালভোগ-ক্ষীরসাপাত

এ মাসেই রাজশাহীর বাজারে মিলবে গুটি-গোপালভোগ-ক্ষীরসাপাত

নিজস্ব প্রতিনিধি :

রাজশাহীতে পরিপক্ক হতে শুরু করেছে আম। চলতি মাসেই আম পাড়ার প্রস্তুতি রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এ মাসের শেষভাগে বাজারে মিলবে গোপালভোগ, ক্ষীরসাপাত (হিমসাগর) ও সব ধরনের গুটি জাতের আম।
রাজশাহী ফল গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. আব্দুল আলিম বলে, জ্যৈষ্ঠ মাসে সবার আগে বাজারে উঠে গোপালভোগ, ক্ষীরসাপাত ও গুটি জাতের আম। তবে পুরোপুরি পরিপক্ক গোপালভোগ ও ক্ষীরসাপাত পেতে চলতি মাসের তৃতীয় সপ্তাহ অর্থাৎ ২১ থেকে ২৫ মের দিকে পাওয়া যাবে। যদিও তার আগেই অনেকে বেশি দাম পাওয়ার আশায় এসব আম বাজারে তুলে থাকেন। তবে আম নামানোর সঠিক সময় হচ্ছে এগুলো।

তিনি আরও বলেন, আবহাওয়ার তারতম্যের কারণে ফল একটু আগে ও পরে পাকতে পারে। প্রচন্ড গরমের কারণেও অনেক আগেই গোপালভোগ আম পাকে। লিচুর ক্ষেত্রেও একইরকম হয়। এছাড়া বাদুড়ের আক্রমণের কারণে অনেক চাষি আধা-কাঁচা লিচু পাড়ছেন। এসব লিচু মিষ্টিও নয়, আবার দামও কম।

রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ সূত্রে জানা গেছে, এবার রাজশাহীতে চলতি মৌসুমে ১৮ হাজার হেক্টর জমিতে আমের চাষ হচ্ছে। প্রতি হেক্টরে ১২ টন আমের ফলন হয়। এ ক্ষেত্রে ১৮ হাজার হেক্টর জমিতে ২ লাখ ১৬ হাজার টন আম উৎপাদন হয়। তবে এবার মৌসুমের শুরুতেই বৈরী আবহাওয়ার কারণে গাছ থেকে অনেক গুটি আম ঝড়ে পড়ায় ফলন কম হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।
এদিকে রাজশাহী জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক মো. আব্দুল্লাহ হিল কাফি বলেন, সাধারণত ‘ম্যাংগো ক্যালেন্ডার’ অনুযায়ী আম পাড়ার সময় নির্ধারণ করা হয়ে থাকে। কোন আম কবে চাষিরা গাছ থেকে নামাতে পারবেন সেই নির্দেশনাই দেওয়া হয়।

তিনি আরও বলেন, ১২ মে দুপুর ৩টায় রাজশাহী জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে আম নামানোর বিষয় নিয়ে একটি নির্দেশনা প্রদান করা হবে। ওই দিন রাজশাহী জেলার আমচাষি, ব্যবসায়ী, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও ফল গবেষণাকেন্দ্রের সংশ্লিষ্ট সবাইকে নিয়ে বসে মতামত সাপেক্ষে একটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
এ বিষয়ে রাজশাহীর জেলা প্রশাসক (ডিসি) আব্দুল জলিল বলেন, ১২ মে আম নামানোর বিষয়ে একটি সভা হওয়ার কথা রয়েছে। সভায় সবার সঙ্গে আলাপ-আলোচনার পর গুটি, গোপালভোগ, ক্ষীরসাপাতসহ সব ধরনের আম পাড়ার সময় নির্ধারণ করা হবে। ১২ তারিখের পর বেঁধে দেওয়া সময়ের বাইরে কেউ আম পাড়তে পারবেন না। কেউ যদি বেঁধে দেওয়া সময়ের আগেই আম নামান তবে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com