বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৫:১২ অপরাহ্ন

করোনামুক্ত রাজশাহী, বন্ধ হলো রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিট

করোনামুক্ত রাজশাহী, বন্ধ হলো রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিট

নিজস্ব প্রতিনিধি :

করোনামুক্ত হয়েছে রাজশাহী। চলতি মাসে রাজশাহীতে করোনা আক্রান্ত কোনো রোগী না পাওয়ায় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের বিশেষায়িত ওয়ার্ড ‘করোনা ইউনিট’। শুক্রবার (১৩ মে) এই ওয়ার্ডটি বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ।
জানা গেছে, ২০২০ সালের মার্চের দিকে এই হাসপাতালে করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় বিশেষায়িত ‘করোনা ইউনিট’ তৈরি করা হয়েছিলো। প্রায় দীর্ঘ দু’বছর পর করোনামুক্ত হলো রাজশাহী মেডিকেলে কলেজ হাসপাতাল।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একদিনে সর্বোচ্চ ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছিলো। ২০২১ সালের ১৪ জুলাই ২৪ ঘণ্টায় ওই মৃত্যু হয়েছিলো। একই সালের ২৮ জুনও মৃত্যু ছিলো ২৫ জন। মারা যাওয়া ২৫ জনের মধ্যে সাতজন করোনা পজিটিভ ছিলেন। করোনার উপসর্গ নিয়ে ১৪ জন মৃত্যুবরণ করেছিলেন। আর চারজন শ্বাসকষ্ট নিয়ে মৃত্যুবরণ করেছিলেন। তারা করোনা নেগেটিভ ছিলেন।
মারা যাওয়া ২৫ জনের মধ্যে রাজশাহীর ছিলো ১২ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের তিন, নাটোরের তিন, নওগাঁর দুই, পাবনার তিন, কুষ্টিয়ার একজন এবং যশোরের একজন রোগী ছিলেন। ওই বছরের জুন মাসে করোনা ইউনিটে মোট ৩৫৪ জন মৃত্যু বরণ করেছিলেন।

রাজশাহীতে মেডিকেলে ২০২১ সালের মাঝামাঝিতে করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু ও সংক্রমণ ছিলো। হাসাপাতালের ১৩ নং ওয়ার্ডে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিলো। হাসপাতালে মোট করোনা ডেডিকেটেড শয্যার সংখ্যা দাঁড়িয়েছিলো ৪৫৪ টিরও বেশি। তবে হাসপাতালে শয্যা সংখ্যা দ্বিগুনের বেশি রোগীকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছিলো। করোনা ইউনিটের প্রতিটি ওয়ার্ডের মেঝে ও বারান্দা কাণায় কাণায় পূর্ণ ছিলো। প্রতিদিনই ছিলো করোনায় মৃত রোগীর স্বজনদের আহাজারি।
এ বছরের শুরু থেকেই করোনায় মৃত্যু ও সংক্রমণ নিম্নমুখি হতে থাকে। মে মাসে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ছিলো মাত্রা ৩ খেকে ৬ জন। সংক্রমণের পরিমাণ মাসের প্রথম থেকেই শূন্য। শুক্রবার (১৩ মে) সংক্রমণ ও মৃত্যু দুটি’ই ‘শূন্য’।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, করোনাকালের লোমহর্ষক সেই মৃত্যুর দৃশ্য এখন আর নেই। সে সময় করোনা আক্রান্ত রোগীর কষ্ট এবং স্বজন হারানোর আহাজারি ছিলো নিত্যদিনের বিষয়। মাত্র ২০ শয্যার আইসিইউ আর শতাধিক রোগীর অপেক্ষার প্রহর। মহামারি পরিস্থিতির সেই টালমাটাল জনজীবন এখন স্বাভাবিক।

তিনি জানান, শুক্রবার (১৩ মে) মেডিকেলের করোনা ইউনিটটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এরআগে মাত্র দু’তিন জন করোনার লক্ষণ নিয়ে ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। ১২ মে তারা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। আপাতত এখন রোগি নেই। তবে যদি দু’জন রোগি করোনার লক্ষণ নিয়ে আসে তাদের রাজশাহী সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতাল (আইডিএইচ) এ পাঠানো হবে।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com