মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৯:৩৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
করোনার কারণে এবারও শোলাকিয়ার ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে না

করোনার কারণে এবারও শোলাকিয়ার ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে না

অল নিউজ ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতির কারণে গত ঈদুল ফিতরের মতো এবারও কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহে ঈদুল আজহা’র জামাত অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। সোমবার (২৭ জুলাই) বিকেলে শোলাকিয়া ঈদগাহ পরিচালনা কমিটির অনলাইন জুম সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

জেলার পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আবদুল্লাহ আল মাসউদ, সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ঈদগাহ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদিরসহ ঈদগাহ পরিচালনা কমিটির সদস্যরা এতে অংশ নেন।

 

 

সভা শেষে ঈদগাহ পরিচালনা কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, শোলাকিয়া ঈদগাহ ঈদের দিন বন্ধ থাকবে। সেই সাথে ঈদগাহ সংলগ্ন মসজিদটিও বন্ধ থাকবে। শহরের শহীদী মসজিদ, পাগলা মসজিদসহ বিভিন্ন মসজিদের ঈদের এক বা একাধিক ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

সভায় সিদ্ধান্ত হয়, ঈদের দিন বাড়ি থেকে মুসল্লিরা নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ ও টুপিসহ মাস্ক পড়ে মসজিদে নামাজ পড়তে যাবেন। এক কাতার ফাঁক রেখে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্য বিধি মেনে মসজিদে নামাজ পড়ার আহ্বান জানানো হয়।

সভায় জানানো হয়, শহরের শহীদী মসজিদের সকাল ৮টা ও ৯টায় পর পর দু’টি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া পাগলা মসজিদের সকাল ৮টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

করোনা পরিস্থিতির কারণে গত ঈদুল ফিতরের মতো এবারও কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহে ঈদুল আজহা’র জামাত অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। সোমবার (২৭ জুলাই) বিকেলে শোলাকিয়া ঈদগাহ পরিচালনা কমিটির অনলাইন জুম সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

জেলার পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আবদুল্লাহ আল মাসউদ, সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ঈদগাহ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদিরসহ ঈদগাহ পরিচালনা কমিটির সদস্যরা এতে অংশ নেন।

 

 

সভা শেষে ঈদগাহ পরিচালনা কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, শোলাকিয়া ঈদগাহ ঈদের দিন বন্ধ থাকবে। সেই সাথে ঈদগাহ সংলগ্ন মসজিদটিও বন্ধ থাকবে। শহরের শহীদী মসজিদ, পাগলা মসজিদসহ বিভিন্ন মসজিদের ঈদের এক বা একাধিক ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

সভায় সিদ্ধান্ত হয়, ঈদের দিন বাড়ি থেকে মুসল্লিরা নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ ও টুপিসহ মাস্ক পড়ে মসজিদে নামাজ পড়তে যাবেন। এক কাতার ফাঁক রেখে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্য বিধি মেনে মসজিদে নামাজ পড়ার আহ্বান জানানো হয়।

সভায় জানানো হয়, শহরের শহীদী মসজিদের সকাল ৮টা ও ৯টায় পর পর দু’টি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া পাগলা মসজিদের সকাল ৮টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com