মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ১১:২৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রাজশাহী জেলায় করোনার সঙ্গে লড়াই করছেন ১৮৯৫ রোগি

রাজশাহী জেলায় করোনার সঙ্গে লড়াই করছেন ১৮৯৫ রোগি

Rajshai city, Bangladesh

নিজস্ব প্রতিবেদক  :  রাজশাহী জেলায় করোনার সঙ্গে লড়াই করছেন ১৮৯৫ রোগি। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগিদের জন্য ভেন্টিলেটার সুবিধাসহ আইসিইউ বেড রয়েছে ১৫টি। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এই ১৫টির বেডের মধ্যে রোববার দুপুর পর্যন্ত ১০টি ফাঁকা পড়ে রয়েছে।

এছাড়াও রাজশাহী জেলায় আইসোলেশন বেড রয়েছে ২৯৫টি। এর মধ্যে রাজশাহীর নয়টি উপজেলায় ১১৫টি। আর রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মিশন হাসপাতাল ও সংক্রমক ব্যাধি হাসপাতাল মিলে ১৮০টি আইসোলেশন বেড রয়েছে।

এদিকে রাজশাহীর ২৯৫ আইসোলেশন বেডের মধ্যে করোনা আক্রান্ত রোগি রয়েছে ৪০টি বেডে। ফাঁকা পড়ে রয়েছে ২৫৫টি বেড। রোববার সকালে রাজশাহীর সিভির সার্জন ডা: এনামুল হক এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, শনিবার রাত পর্যন্ত রাজশাহী জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩২৪১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ২৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৩২১ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৮৯৫ জন। এর মধ্যে হাসপাতাল আইসোলেশনে মাত্র ৪০ জন। বাকি ১৮৫৫ জন হোম আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সিভিল সার্জন দপ্তরের তথ্য মতে, রাজশাহীতে সবচেয়ে বেশী করোনা আক্রান্ত রোগির সংখ্যা সিটি করপোরেশন এলাকায় ২৪৫২ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১১ জন এবং সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন ১০০৬ জন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৪৩৫ জন।

করোনা সংক্রমণের দিক দিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে জেলার পবা উপজেলা। এ উপজেলায় আক্রান্ত সংখ্যা ১৯৩ জন, মারা গেছেন ৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮৭ জন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১০০ জন। এছাড়াও বাঘায় এখন পর্যন্ত ৭০ জন আক্রান্ত রোগির মধ্যে একজন মারা গেছেন। সুস্থ হয়েছেন ২০ জন। চিকিৎসাধীন ৪৯ জনের মধ্যে হাসপাতালে ৪ জন।

চারঘাটে আক্রান্ত ৮২ জনের মধ্যে মারা গেছেন দুইজন এবং সুস্থ হয়েছেন ৩৩ জন। চিকিৎসাধীন ৪৭ জনের মধ্যে হাসপাতালে ৬ জন। পুঠিয়ায় আক্রান্ত ৭৬ জনের মধ্যে মারা গেছে একজন, সুস্থ হয়েছেন ২১ জন। চিকিৎসাধীন ৫৪ জনের মধ্যে হাসপাতালে ২ জন রয়েছেন। এছাড়াও দুর্গাপুরে আক্রান্ত ৫৮ জনের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৫ জন। চিকিৎসাধীন ৪৩ জনের মধ্যে হাসপাতালে ৩ জন।

বাগমারায় করোনা আক্রান্ত ৬৫ জনের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২৮ জন। চিকিৎসাধীন ৩৭ জনের মধ্যে ১৯ জন হাসপাতালে। মোহনপুরে আক্রান্ত ৮৬ জনের মধ্যে মারা গেছেন একজন এবং সুস্থ হয়েছেন ৫৫ জন। চিকিৎসাধীন ৩০ জনের মধ্যে হাসপাতালে রয়েছেন ৪ জন।

তানোরে আক্রান্ত ৮৩ জনের মধ্যে সুস্থ্য হয়েছেন ৪২ জন। চিকিৎসাধীন ৪১ জনের মধ্যে হাসপাতালে দুইজন।

এছাড়াও গোদাগাড়ীতে আক্রান্ত ৭৬ জনের মধ্যে মরা গেছেন তিনজন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৪ জন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৫৯ জন।

এর মধ্যে ১ হাজার ৯৯৫ জনই সিটি করপোরেশন এলাকার। এছাড়াও জেলার বাঘা উপজেলায় ৪৮, চারঘাটে ৪৫, পুঠিয়ায় ৩৮, দুর্গাপুরে ৩৩, বাগমারায় ৫৬, মোহনপুরে ৭৪, তানোরে ৬৭, পবায় ১২৩ এবং গোদাগাড়ীতে ৩১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com