শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৯:৪৭ অপরাহ্ন

তানোরে আ.লীগ নেতার পাশে চরমপন্থী ও যুবদল নেতা!

তানোরে আ.লীগ নেতার পাশে চরমপন্থী ও যুবদল নেতা!

একপাশে বিএনপির কর্মী, অন্যপাশে চরমপন্থী ক্যাডার। মাঝে দাঁড়িয়ে কোরবানির মাংস বিতরণ করছেন রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া থানা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবুল বাশার সুজন। তার এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

এ নিয়ে সমালোচনা দেখা দিয়েছে দলের ভেতরে-বাইরে। আবুল বাশার সুজন রাজশাহীর তানোর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী হবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন। ছবিটি তানোর পৌর এলাকারই। পৌরসভার চাপড়া এলাকায় কিছু দিন আগে জমি কিনে বাড়ি করেছেন তিনি। সেই বাড়ির সামনেই তিনি মাংস বিতরণ করেন।

মাংস বিতরণের পর সেখানে প্রীতিভোজের আয়োজন করা হয়। পুরো আয়োজনজুড়েই সেখানে উপস্থিত ছিলেন তানোর পৌর যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি আয়েন উদ্দিনসহ বিএনপি ও যুবদলের বেশকিছু নেতাকর্মী। পরে দরিদ্রদের মাঝে মাংস বিতরণের এই ছবি ফেসবুকে পোষ্ট করা হয়।

ওই ছবিতে এলাকার চিহ্নিত চরমপন্থী সদস্য আবু হেনা ও বিএনপি কর্মী জাবেদ আলীকে দেখে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগসহ অঙ্গ-সংগঠনের একাংশের নেতাকর্মীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে।

তারা বলছেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরী রাজশাহী মহানগরের নেতা সুজনকে তানোর পৌর নির্বাচনে দলীয় মেয়র প্রার্থী ঘোষণা দিয়ে মাঠে নামিয়েছেন। কিন্তু সুজন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের চেয়ে বিএনপির লোকজনকে নিয়েই বেশি ব্যস্ত। সুজন আওয়ামী লীগের নবীর-প্রবীণ ত্যাগী নেতাকর্মীদের সাথে কোন যোগাযোগ করছেন না। ফলে আগামী নির্বাচনে তানোর পৌরসভা আওয়ামী লীগের দখলে আসবে কিনা তা নিয়ে ভোটারসহ জনসাধারণের মধ্যে শুরু হয়েছে আলোচনা ও সমালোচনা। ভোটাররা বলছেন, যদি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাইনাস করে সুজনকে মনোনয়ন দেয়া হয় তবে বিএনপির বর্তমান মেয়র মিজানুর রহমান মিজানের জন্য সুবিধা হবে।

এ নিয়ে যোগাযোগ করা হলে আবুল বাশার সুজন বলেন, আয়েন উদ্দিন আমার দীর্ঘদিনের ব্যবসায়ী পার্টনার। আমি মেয়র প্রার্থী ঘোষণা নিয়ে মাঠে নামার পর থেকে সে আর বিএনপির বা যুবদলের কোন সভা সেমিনারে যায় না। সে আমার সাথেই আছে। তিনি বলেন, জোর করেই এখনও তাকে যুবদলের পদে রাখা হয়েছে।

তানোর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমরুল হক বলেন, গত নির্বাচনে আমি মাত্র ১৩ ভোটে পরাজিত হয়েছি। আমাকে আরেকবার সুযোগ না দিয়ে রাজশাহী থেকে বহিরাগতকে এনে চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা চলছে। তিনি বলেন, এমপি ওমার ফারুক চৌধুরীর ঘোষিত প্রার্থী সুজন দলের পদধারী নেতাদের সাথে কোন যোগাযোগ করেন না। তাই সুজনের আয়োজনে পদধারী নেতারা উপস্থিত থাকেন না।

যোগাযোগ করা হলে তানোর পৌর যুবলীগ সভাপতি রাজিব সরকার হিরোর বাড়ির পার্শ্বে করা সুজনের আজ মাংস বিতরণ ও প্রিতী ভোজের প্রোগ্রামের বিষয়ে তিনি শুনেছেন জানিয়ে বলেন, আমি রাজশাহীতে আছি জানিয়ে মোবাইল সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেন।

এবিষয়ে যোগাযোগ করা হলে তানোর পৌর মেয়র ও তানোর উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান বলেন, আইয়ান উদ্দিন তানোর পৌরসভা যুবদলের সিনিয়ন সহ-সভাপতি। তিনি বলেন, আইয়ানের পিতাও ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি। তারা বিএনপিতে এখনো সক্রিয় রয়েছেন।

সুত্র- দৈনিক সোনালী সংবাদ

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com