রবিবার, ২০ Jun ২০২১, ০৬:৫২ পূর্বাহ্ন

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস থেকে রক্ষা পেতে লক্ষ্মীপুরে ২০৯ আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস থেকে রক্ষা পেতে লক্ষ্মীপুরে ২০৯ আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত

নিউজ ডেস্ক : ঘূর্ণিঝড় ইয়াস থেকে রক্ষা পেতে লক্ষ্মীপুরে ১০৯ সাইক্লোন শেল্টার ও ১০০ শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান প্রস্তুত রয়েছে। দুর্যোগের আগে ও পরে চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে ৬৬টি মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়েছে। দুর্ঘটনা থেকে রক্ষার জন্য জেলা-উপজেলা প্রশাসন, জেলা-থানা পুলিশ প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ হটলাইন নম্বরগুলো ২৪ ঘণ্টা চালু থাকবে। নম্বরগুলো জনসাধারণের জন্য প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

রবিবার (২৩ মে) বিকালে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির ভার্চুয়াল সভা শেষে গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ।

তিনি আরো জানান, উপকূলীয় এলাকায় প্রচারণা (মাইকিং) চালিয়ে নদী তীরবর্তী বাসিন্দাদের নিরাপদে সরিয়ে আনার কাজ শুরু হয়েছে। দুর্যোগ মুহূর্তে মেঘনা উপকূলীয় এলাকার বাসিন্দাদের জন্য ২৭৯ মেট্রিক টন চাল, ২৪ লাখ টাকা, শিশু খাদ্যের জন্য ৯ লাখ ও গো খাদ্যের জন্য ১৩ লাখ টাকা মজুদ রাখা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় থেকে জনগণকে রক্ষা করতে সকল ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

ভার্চুয়াল সভায় জেলা পুলিশ সুপার ড. এ এইচ কামরুজ্জামান, সিভিল সার্জন ড. আব্দুল গফ্ফারসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সকল সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তারা অংশ নিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, মেঘনা নদী উপকূলীয় জেলা লক্ষ্মীপুর। এ জেলার সদর, রায়পুর, রামগতি ও কমলনগর উপজেলা মেঘনা নদী ঘিরে আছে। রামগতি ও কমলনগর থেকে মেঘনা নদী হয়ে বঙ্গোপসাগর কাছাকাছি অবস্থানে রয়েছে। এতে যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগে এ অঞ্চলটি সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে থাকে। রামগতির চর আবদুল্লাহ ইউনিয়ন মেঘনা নদী দ্বারা বেস্টিত। এ ইউনিয়নটি দুর্যোগে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com