বৃহস্পতিবার, ১৭ Jun ২০২১, ১০:৪০ অপরাহ্ন

অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশ করেছে যৌন নির্যাতনকারীরা

অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশ করেছে যৌন নির্যাতনকারীরা

নিউজ ডেস্ক : ভারতের কেরালায় বাংলাদেশি তরুণীকে পৈশাচিক যৌন নির্যাতনের ঘটনায় জড়িত সবাই অবৈধভাবে দেশটিতে প্রবেশ করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

 

শনিবার (২৯ মে) নিজ কার্যালয়ে ব্রিফিং করে সাংবাদিকদের এই কথা জানান ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ। উপ-কমিশনার জানান, টিকটক হৃদয়ের গ্রুপ স্কুল-কলেজের বখে যাওয়া তরুণী এবং গৃহবধূদের টিকটক গ্রুপের মাধ্যমে একত্রিত করে ভারতসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে পাচার করতো। এরা একটি আন্তর্জাতিক নারী পাচারকারী চক্রের সদস্য। এদের নেটওয়ার্ক বেশ বিস্তৃত বলে ধারণা করা হচ্ছে।

 

টিকটক হৃদয়ের গ্রুপ বর্তমানে ভারতীয় পুলিশের হেফাজতে রয়েছে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশি তরুণীকে যৌন নির্যাতনের ঘটনায় সম্প্রতি টিকটক হৃদয়ের গ্রুপকে গ্রেপ্তার করে ভারতীয় পুলিশ। তাদের দেশের ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

 

সম্প্রতি ভারতের কেরালায় এক বাংলাদেশি তরুণীকে অমানুষিক যৌন নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। যার ভিডিও ভাইরাল হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। ওই ভিডিওর সূত্র ধরে অনুসন্ধান করে রিফাতুল ইসলাম হৃদয় নামের এক নির্যাতনকারীকে শনাক্ত করে পুলিশের তেজগাঁও বিভাগ।

 

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৭ মে) রাতে ওই তরুণীকে নির্যাতনের ঘটনায় দুই নারীসহ ছয় জনকে গ্রেপ্তার করে বেঙ্গালুরুর পুলিশ। পরে তদন্তের জন্য শুক্রবার (২৮ মে) চার তরুণকে থানা থেকে তাদের আবাসস্থলে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে টিকটক হৃদয় ও সাগর পুলিশকে আক্রমণ করে পালানোর চেষ্টা করলে পুলিশ গুলি চালায়। এতে হৃদয় ও সাগর হাঁটুতে গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন।

 

 

এই ঘটনার পর ভারতীয় পুলিশ জানিয়েছে, গুলিবিদ্ধ হৃদয় ও সাগরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক নয়। নির্যাতনকারীরা বর্তমানে ভারতীয় পুলিশের হেফাজতে থাকলেও নির্যাতনের শিকারও ওই তরুণীকে এখনো খুঁজে পাওয়া যায়নি। ধারনা করা হচ্ছে ওই তরুণী কর্ণাটক থেকে পালিয়ে পাশের কোনো রাজ্যে চলে গেছেন। তার সন্ধানে বিশেষ একটি আভিযানিক দল মাঠে নেমেছে।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com