বৃহস্পতিবার, ১৭ Jun ২০২১, ০১:২১ পূর্বাহ্ন

কানসাটে জমে উঠেছে আমের বাজার, উৎপাদন বেশী হওয়ায় দাম কম

কানসাটে জমে উঠেছে আমের বাজার, উৎপাদন বেশী হওয়ায় দাম কম

মোহা: সফিকুল ইসলাম, শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) সংবাদদাতা:

উত্তর বঙ্গের আমের রাজধানী কানসাট বাজারে কিছুটা দেরীতে হলে জমে উঠেছে আম বাজার। জেলার বিভিন্ন উপজেলার বিভিন্ন স্থান হতে ভ্যান, সাইকেলে, পিকআপ সহ বিভিন্ন যানবাহনে আসছে হাজার হাজার মন বিভিন্ন জাতের আম। ১৬কিলোমিটার জুড়ে এ বাজারে গ্রাম্য আম ব্যবসায়ী বাইর নামে খ্যাত কানসাট শিবনগর গ্রামের ভুল্ল আলি জানান ৪বিঘা জমিতে ৮০টি আম গাছ কিনেছি ৩৮হাজার টাকায়। অন্যান্য খরচ হয়েছে প্রায় ১৫হাজার টাকা।আম হবে প্রায় ৯০মন। বর্তমানে ন্যাংড়া ও লখনা আম বাজারে নিয়ে এসেছি। দর ভাল নয়। পাইকারে ১১শ টাকা মন বলছে। এখনো বিক্রী করিনি । ভাল দামের আশায় বসে আছি। চককীর্তি ইউনিয়নের চককীর্তি গ্রামের মাইনুর ইসলাম জানান, একভ্যান কালিভোগ আম এনেছি। দাম চেয়েছি ১হাজার টাকা মন।পাইকারে বলছে সাড়ে ৭শ থেখে ৮শ টাকা। গতবারে চেয়ে দাম কিছুটা কম। কারণ গত ৪বছরের মধ্যে এবছর আমের ফলন বেশী হয়েছে।

 

তিনি আরো জানান, তিন বছর মেয়াদে ৮০টি আম গাছ ৫লাখ টাকায় কিনেছি। সার ও স্প্রে খরচ হয়েছে প্রায় দেড় লাখ টাকা।এ বছর আম হবে প্রায় ৩শ মন । তাছাড়া ১লাখ আম প্যাকেট জাত করা আছে। প্রথম বছর লাভ কিছুটা কম হলেও দুই বছর লাভ হবে।

 

তিনিআরো জানান আম বেশী উৎপাদন, করোনা আতংক ও বাহির থেকে লোক আসনে না পারায় আমের দাম কিছুটা কম। কুড়িগ্রাম জেলার রাজৈর থানা থেকে আস আব্দুল মজিদ ব্যাপারি পাইকার আলিম জানান আমি সকালে বাড়ি থেকে আসি এবং সারাদিন আম কিনে আবার সন্ধ্যায় রওয়ানা দিই। পরের দিন আমার এলাকায় আম বিক্রী করি। কানসাট বাজার থেকে ক্রয় করা আমের চাহিদা আমাদের এলকায় বেশী। কারণ এখানকার আম অত্যন্ত সুস্বাদু। কানসাট আব্বাস বাজারের বাহারুলজানান আমি গ্রামে বা মাঠের বাগানে ঘুরে ঘুরে আম গাছ থেকে আম ক্রয় করি। সেগুলো কানসাটবাজারে এনে বিক্রী করি। আজও এনেছি।তবে দাম কম পাচ্ছি। কারণ নানাধরনের।আম আড়তদার মাদারীপুর জেলার কাসিমপুর থানার আলিম জানান, এখানে আমদের আড়ত আছে।

 

তিনি বলেন চাাঁপাইনবাবগঞ্জের আমের স্বাদ বেশী হওয়ায় দামও বেশী। তাই আমাদের ব্যবসা খুব একটা ভাল হচ্ছে না।গত কাল দিনব্যাপী প্রায়১৬কিলোমিটার জুড়ে কানসাটের আম বাজার সরজমিনেরঘুরে শতাধিক আম ক্রেতা- বিক্রেতা ও প্রায়৮শটি আাম আড়দাদের মধ্যে প্রায় ২৫/৩০জন আড়তদারর সাথে কথা বলে প্রায় একই ধরনের চিত্র পাওয়া গেছে।

 

কানসাট আম বাজার সম্পর্কে কানসাট আম আড়তদার সমিতির সাধারণ সম্পাদক উমর ফারুক টিপু বলেন, আমরা স্বাস্থ্য বিধিমানার মাধ্যমে কানসাটে আম ক্রয় বিক্রয় করাচ্ছি। বর্তমানে আমের দর ভাল। ব্যবসা ভাল হচ্ছে। আম ব্যাবসায়ী, আড়তদার, বাইড়াল সহ সংশ্লিষ্ট কেউ কোন ধরনর হয়রানীর শিকার হচ্ছে না। তবে এবছরে গত ১০বছরের মধ্যে উৎপাদন বেশী হওয়ায় বাজারে আম বেশী আমদানী হচ্ছে।ফলে সামান্য সসম্য হচ্ছে। তা কয়েকদিনের মধ্যে কেটে যাবে।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com