শনিবার, ৩১ Jul ২০২১, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
দুর্গাপুরে ১৩ ফুটের দুটি গাঁজা গাছসহ কবিরাজ গ্রেপ্তার এনআইডি না থাকলেও বিশেষ প্রক্রিয়ায় করা যাবে  টিকার নিবন্ধন দেশে টিকা নিলো ১ কোটি ২৮ লাখ ৫০ হাজার ৮৩৪ জন মানুষ রাজশাহী-চাঁপাইয়ে আবারও বেড়েছে সংক্রমণ হাতীবান্ধায় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীকে মারধর ও স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয়ার অভিযোগ পাট চাষে কৃষকের মুখে হাসি নওগাঁয় অস্ত্র-গুলিসহ ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার নওগাঁয় চুরির অপবাদে হাত-পা বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় শিশুকে নির্যাতন জামিল ব্রিগেডের কার্যক্রম রাজশাহী শহর পেরিয়ে এবার গ্রামে চিকিৎসা, শিক্ষা, অবকাঠামো, মান উন্নয়নে বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ডের জন্য ১২ দফা প্রস্তাব
পাটগ্রামে মাদ্রাসার জমি জবর দখলের চেষ্টা

পাটগ্রামে মাদ্রাসার জমি জবর দখলের চেষ্টা

পাটগ্রাম প্রতিনিধি :

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার কুচলিবাড়ী ইউনিয়নের পানবাড়ী রহিমুদ্দিন গাজীউল্যাহ ফোরকানিয়া মাদরাসার জমি জবর দখল চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে।

 

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, একই এলাকার সহির উদ্দিনে ছেলে সহিদার রহমান ওই মাদ্রাসার জমি উত্তরাধীকারী সূত্রে মালিক দাবি করে আসছে। মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা আজিজুর রহমান ওরফে দরবেশ ২০০৬ সালে সহিদার রহমানের ছোট ভাই আব্দুল জব্বাররে নিকট ৬.২৫ শতক জমি ক্রয় পূর্বক দলিল করে নেন। জমি বুঝে নিয়ে মাদ্রাসার কেনা জমিতে আজিজুর রহমান গাছ- পালা ও বাঁশ লাগান। দীর্ঘ ৪ বছর পর সহিদার রহমান ছোট ভাইয়ের পৈতৃক প্রাপ্ত অংশের বিক্রিত জমির মালিক দাবি করে বসেন। একপর্যায়ে জমির মালিকানা নিয়ে আদালতে মামলা করেন উভয়পক্ষ। আদালত দলিল- দস্তাবেজ পর্যালোচনা করে সহিদার রহমানের করা ৩ টি মামলা খারিজ করে দিয়ে মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠানের পক্ষে রায় দেন। একই এলাকার বাসিন্দা নুর ইসলাম বলেন, সহিদার রহমান চলমান মাদ্রাসাটি বন্ধে ও জমির দখল নিতে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করছেন। বিভিন্ন জনের নিকট শুনেছি সহিদার রহমান মাদ্রাসার সন্নিকট টিনের চালায় নাকি আগুন ধরিয়ে দিয়েছেন।

সহিদার রহমান বলেন, উক্ত জমির উপর আমার কোনো অভিযোগ নেই। আমি টিনের চালায়ও আগুন দেইনি। বরং তারাই আমাকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করছে। মামলা দিয়ে ক্ষতি করছে।

 

এ বিষয়ে পানবাড়ী ফোরকানিয়া মাদরাসা ও দায়রা শরীফের প্রতিষ্ঠাতা আজিজুর রহমান ওরফে দরবেশ বলেন, আমাকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করছে ভয়-ভীতি দেখায় সহিদার রহমান। চলতি বছরের ০৯ মে বিকেলে মাদ্রাসা সংলগ্ন টিনের চালা আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় সে। এ বিষয়ে পাটগ্রাম থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছি। আমি ধর্মীয় শিক্ষার জন্য মাদ্রাসাটি স্থাপন ও পরিচালনা করি। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

এবিষয়ে পাটগ্রাম থানার ওসি ওমর ফারুক বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছিল। আমি নতুন এসেছি। বিষয়টি জেনে জানাব।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com