বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ০৮:৩৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বরিশাল হাসপাতালে  টাকা না দেয়ায় মেলেনি অক্সিজেন, ছটফট করে মারা গেলেন রোগী হেলেনা জাহাঙ্গীরের ২ সহযোগী আটক অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ের সংশ্লিষ্টরা ভ্যাকসিন না নিলে বেতন বন্ধ টিকা বাণিজ্যে অভিযুক্ত ‘হুইপ পোষ্য’কে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত হিলিতে তুলা কারখানায় আগুনে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি গাইবান্ধা গ্রাম পুলিশরা মানহীন সাইকেল গ্রহণে অস্বীকৃতি  অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম জয়ে টাইগারদের প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন জগন্নাথপুরে করোনা উপসর্গে চার ঘণ্টার ব্যবধানে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু ২৬০০ ডোজ টিকা বিক্রি করেন হুইপের ভাই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি জয় নিয়ে যা বললেন মাহমুদউল্লাহ
পুলিশের সাথে ধস্তা-ধস্তি অত:পর ৫ মামলার আসামী জিল্লু সরদার আটক

পুলিশের সাথে ধস্তা-ধস্তি অত:পর ৫ মামলার আসামী জিল্লু সরদার আটক

মো: সামিউল ইসলাম, রাজশাহী প্রতিনিধি :

আড়ানী পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর ও পাঁচ মামলার আসামী জিল্লু সরদারকে আটক করেছে পুলিশ। আদালত থেকে ওয়ারেন্ট থাকায় আজ শুক্রবার(২৫-জুন) সকালে তাকে আটক করা হয়। এ সময় পুলিশের সাথে ধস্তা-ধস্তি করে পালানোর চেষ্টা করলে জিল্লু সরদারের দুই পায়ের হাটু এবং মুখের নিচের অংশ থুতনু ছিলে যায়। একই সাথে পুলিশের সার্টের বোতাম ছিড়ে যাওয়া সহ ব্যবহৃত মোটর সাইকেলের ক্ষতিসাধন হয় বলে উল্লেখ করেন স্থানীয় লোকজন। ।

 

লোকজন জানান, জিল্লু সরদার আড়ানী পৌর সভার ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছিলেন। তাঁর পিতার নাম মৃত মোজাহার সরদার। বাড়ী পৌর এলাকার গোচর গ্রামে। তার পারিবারিক ঐতিহ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে এলাকাবাসীরা বলেন, তারা আপন এবং চাচাতো মিলে প্রায় ৪০ থেকে ৫০ জন ভাই রয়েছে। এ কারনে এলাকায় তাদের ব্যাপক প্রভাব এবং দাপট রয়েছে।

 

নাম প্রকাশ না করার সর্তে একজন স্কুল শিক্ষক জানান, এই দাপটের কারনে তারা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জনের সাথে তুচ্ছ ঘটনা এবং ছোট-খাট বিষয় নিয়ে বিরোধ তথা সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে। এমনি ভাবে বিভিন্ন সংঘাত এবং দাঙ্গা-হাঙ্গামার ঘটনায় সাবেক কাউন্সিলর জিল্লু সরদারের নামে বাঘা থানায় বেশকটি জি’ডি এবং একাধিক মামলা রয়েছে।

 

এদিকে জিল্লু সরদারের হাতে মারপিট ও লাঞ্চিত হওয়া ভুক্ত ভুগী গোচর গ্রামের মসলেম উদ্দিনের ছেলে জামাল উদ্দিন, একই এলাকার কপিল উদ্দিন, জয়নাল এবং চকর পাড়া গ্রামের কালু প্রাং এর ছেলে আক্কাস আলী অভিযোগ করে বলেন,তাদের অনেক বড় গোষ্টি। এ কারনে তারা মানুষকে-মানুষ মনে করেনা। যে কোন তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওরা মানুষকে অসম্মান তথা লাঞ্চিত এবং মারপিট করে থাকে।
সর্বশেষ গোচর গ্রামে একটি মারামারি মামলায় ২ নং আসামী হয় জিল্লু সরদার। এ মামলায় অন্যরা জামিন নিলেও জিল্লু সরদার আদালতে হাজির না হওয়ায় তার নামে ওয়ারেন্ট ইস্যু হয়। এই ওয়ারেন্ট নিয়ে শুক্রবার বাঘার থানার উপ-পরিদর্শক(এস.আই) শাহালম একটি মোটর সাইলে যোগে অপর একজন পুলিশ নিয়ে আড়ানী বাজারে সকাল সাড়ে ১১ টায় তাকে আটক করে।

 

এ সময় জিল্লু সরদার পুলিশের সাথে ধস্তা-ধস্তির শুরু করলে (এস. আই) সাহালমের সাটের বোতাম ছিড়ে যায়। অত:পর তাকে মোটর সাইকেলের মাঝখানে বসিয়ে থানায় নিয়ে আনার সময় সে মোটর সাইকেল থেকে ঝাঁপ দিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। এ ঘটনায় জিল্লু সরদারের পায়ের দুইহাটু এবং মুখমন্ডলের নিচের অংশ থুতনু ছিলে যায় বলে উল্লেখ করেন ঘটনার প্রত্যক্ষ দর্শীরা।

 

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি) নজরুল ইসলাম জিল্লু সরদারের নামে আদালত থেকে ওয়ারেন্ট ইস্যু এবং থানায় ৫ টি মামলা থাকার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আজ সকালে বাঘা থানা পুলিশ তাকে আটক করেছে। এ সময় পুলিশের সাথে সে ধস্তা-ধস্তি করে পালানোর চেষ্টা করলে তার হাটু এবং থতনু ছিলে যায় । একই সাথে কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তার মোটর সাইকেলের ক্ষতি সাধন হয়।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com