বৃহস্পতিবার, ২৯ Jul ২০২১, ১১:৩১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
পীরগাছায় পশুর হাটে হাজির ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান, মুহূর্তেই ফাঁকা হাট বেগমগঞ্জে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা , স্বামী আটক ভারতে কারাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন ১০ নারী-পুরুষ আজ রাতে চীন থেকে আসছে আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা নিম্ন আদালতের বিচারকদের মাসব্যাপী কালো ব্যাজ ধারণের নির্দেশ এবার কুষ্টিয়ায় ১০ মিনিটে দুইবার টিকা নিয়েছেন এক ব্যক্তি সরকারি স্বাস্থ্যকর্মী বেতন ৬০ হাজার, তবুও ভিক্ষা করেন নবীগঞ্জে আটকে রেখে কিশোরীকে গণধর্ষণ, যুবক আটক শেরপুর হাসপতালে করোনা ইউনিটে ডাক্তারের সই জাল করে ওষুধ উধাও করোনাকালে মানুষের পাশে দাঁড়ানোই নেতাকর্মীদের প্রধান কাজ : সাখাওয়াত হোসেন
শিবগঞ্জে পৌনে দুই মণ আমে এককেজি খাসির মাংস

শিবগঞ্জে পৌনে দুই মণ আমে এককেজি খাসির মাংস

মোহা: সফিকুল ইসলাম, শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) সংবাদদাতা:

শিবগঞ্জে এক কেজি মাংস কিনতে বিক্রী করতে হচ্ছে প্রায় পৌনে দুই মন আম। সরজমিনে মাংসের বাজারে ঘুরে কসাইও মাংস ক্রেতাদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে গরুর এককেজি মংসের দাম ৬শ টাকা, খাসির এক কেজি মাংসের দাম সাড়ে ৭শত থেকে ৮ শ টাকা।

 

অন্যদিকে উত্তর বঙ্গের বৃহত্তম কানসাট আম বাজারে সরজমিনে ঘুরে আম বিক্রেতা ও ক্রেতাদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে চাঁপাইনবাগঞ্জ জেলার ঐতিহ্য বাহী ফজলী আমের দাম মাত্র ৪শ থেকে ৫শ টাকা মন। কানসাট বাজারে গতকাল কথা হয় আম ক্রেতা শ্যামপুর ইউনিয়নের শেরপুর ভান্ডারের লাল্টুর সাথে। তিনি জানান নিজ বাগানের এক ভ্যানে ৪মণ ফজলী আম নিয়ে সকালে এসেছি। বিকাল ৩টা পর্যন্ত আম বিক্রী  করতে পারেনি। দাম চেয়েছি সাড়ে ৫শ টাকা মণ। ক্রেতা বলছে ৪শ টাকা মণ। তিনি আরো জানান ৪মণ আমের পাকা ওজন দিতে  গিয়ে দিতে হচ্ছে ৫মণ ৮ কেজি আম। অর্থাৎ ৫২ কেজিতে মণ। তারপর আবার মহরাল নিচ্ছে মণ প্রতি একটি, কয়েলী বাবদ নিচ্ছে মণ প্রতি একটা ও শ্রমিকরা নিচ্ছে ভ্যান প্রতি প্রায় ২ কেজি।তাছাড়া হাট ঝাড়–দার নিচ্চে ভ্যানপ্রতি একটা, রাস্তায় কয়েকস্থানে মসজিদ,মাদ্রাসার নামে নিচ্ছে ভ্যান বা সাইকেল প্রতি একটা, ও রবিদাস সম্প্রদায়ের ভকত বা ডোমরা কয়েকস্থানে একটা আম নিচ্ছে। একভ্যান আম (অর্থাৎ প্রায় ৫মন ১৫ কেজি আম) বিক্রী করে সব মিলিয়ে ৪মণ আমের পাকা ওজনে দিতে হচ্ছে ৫মণ ১৫ কেজি। অন্যদিকে মনাকষা বাজারে মাংশ বিক্রেতা শুকুর, বুদ্ধু সহ শিবগঞ্জ, কানসাট, দূর্লভপুর সহ বিভিন্ন বাজারে ঘুরে কশাইদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে গরুর মাংশ ৬শ টাকা কেজি ও খাসির মাংস সাড়ে ৭শ থেকে ৮ শ টাকা কেজি।

আম বিক্রেতা জেম আক্ষেপ করে বলেন, হায়রে আমাদের অর্থকারী ফসল আম। যার দাম এতই নিচে যে কানসাট বাজারে ফজলী আম দুই মণ বিক্রী করে এককেজি খাসির মাংস কিনে ও সাইকেল ভাড়া দিয়েই শেষ হয়ে গেলো। শুধু জেম নয় , শিবগঞ্জ সহ জেলার হাজার হাজার আম চাষী ও আম ব্যবসায়ীদের একই অবস্থা। কানসাট বাজার এলাকার প্রায় ৭৫বছরের জনৈক মুরব্বী জানান আমর জীবনে আমের এত বেহাল দশা কোনদিন দেখিনি। আম চাষী ও আম ব্যবসায়ীদের আকুতি চাঁপাইনবাবগঞ্জের ঐতিহ্য আম টিকিয়ে রাখতে প্রশাসনের প্রয়োজন ব্যবস্থা গ্রহন।তারা আরো জানান আম টিকিয়ে না রাখতে না রাখতে পারলে হাজার হাজার আম চাষী পথে বসবে।হাজার হাজার আম ব্যবসায়ী কোটি কোটি টাকা ক্ষতিগ্রস্থ হবে। ধ্বংস হবে আমের ঐতিহ্য ।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com