বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ০৮:২১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বরিশাল হাসপাতালে  টাকা না দেয়ায় মেলেনি অক্সিজেন, ছটফট করে মারা গেলেন রোগী হেলেনা জাহাঙ্গীরের ২ সহযোগী আটক অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ের সংশ্লিষ্টরা ভ্যাকসিন না নিলে বেতন বন্ধ টিকা বাণিজ্যে অভিযুক্ত ‘হুইপ পোষ্য’কে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত হিলিতে তুলা কারখানায় আগুনে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি গাইবান্ধা গ্রাম পুলিশরা মানহীন সাইকেল গ্রহণে অস্বীকৃতি  অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম জয়ে টাইগারদের প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন জগন্নাথপুরে করোনা উপসর্গে চার ঘণ্টার ব্যবধানে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু ২৬০০ ডোজ টিকা বিক্রি করেন হুইপের ভাই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি জয় নিয়ে যা বললেন মাহমুদউল্লাহ
রাজশাহী নগরীর মোড়ে মোড়ে কড়াকড়ি, বাজারে গাদাগাদি

রাজশাহী নগরীর মোড়ে মোড়ে কড়াকড়ি, বাজারে গাদাগাদি

নিজস্ব প্রতিবেদক :

করোনার সংক্রমণ রোধে নগরীতে স্থানীয় প্রশাসনের ঘোষণাকৃত তৃতীয় ধাপের কঠোর লকডাউন চলছে। এরমধ্যে আগামী সোমবার (২৮ জুন) থেকে সারাদেশে এক সপ্তাহের কঠোর লকডাউন দিয়েছে সরকার। যে লকডাউন বাস্তবায়নে মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও বিজিবিসহ স্থানীয় প্রশাসন। সারাদেশের কঠোর লকডাউনের আগে নগরীর মাস্টারপাড়া, সাহেববাজার, কোর্টবাজার এলাকায় কেনাকাটায় মানুষের বাড়তি ভিড় দেখা গেছে। আর নগরীর মোড়ে মোড়ে পুলিশের তৎপরতায় তেমন গাড়ি চলাচল না করায় দুর্ভোগের মধ্যে পড়তে হয়েছে এসব মানুষদের। পায়ে হেঁটে অনেককেই গন্তব্যে পৌঁছাতে দেখা গেছে।

শনিবার(২৬ জুন) নগরীর গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলো ঘুরে দেখা যায়, লকডাউনে নগরীর প্রধান সড়কগুলো প্রায় ফাঁকা থাকলেও ছোট ছোট রাস্তাগুলোতে মানুষের সমাগম ছিলো। স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে অনেক মানুষ উদাসীন ছিলেন। যদিও সন্ধ্যার পর নগরীজুড়ে নিস্তব্ধতা বিরাজ করছে। জীবিকার তাগিদে সকাল থেকে বেলা গড়ানোর আগ পর্যন্ত নগরীজুড়ে মানুষের চলাচল থাকছে। প্রশাসনের নির্দেশনানুযায়ী শপিংমল ও মার্কেট বন্ধ থাকার কথা থাকলেও এদিন কোর্টবাজার ও সাহেববাজার এলাকার অনেক দোকান খোলা রাখতে দেখা গেছে। অর্ধ সার্টার টেনে তারা ব্যবসা করছেন। এদিন দুপুর পর্যন্ত দোকানগুলোতে ক্রেতাদের আনাগোনাও ভালো ছিলো। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত নগরীর মাস্টারপাড়া কাঁচাবাজার ও আশেপাশের মুদিদোকান, মসলা দোকানগুলোতে ক্রেতাদের ভিড় ছিলো চোখে পড়ার মতো।

একই সঙ্গে গাড়ির পাশাপাশি এসব দোকানিরাও ক্রেতাদের থেকে বেশি দাম আদায় করছে বলে অভিযোগ করছেন ক্রেতারা। নগরীর সাহেববাজার এলাকায় কাঁচাবাজারে এসেছিলেন আসমা বেগম। তিনি জানান, রাজশাহীতে লকডাউন চলছে। সামনে সেনাবাহিনীও মাঠে নামবে। এখনই যে অবস্থা তাতে তিন কিলোমিটার হেঁটে বাজার করতে আসতে হচ্ছে। সামনে বাসা থেকে বের হতে পারবো কি না? এমন নানা শঙ্কা আছে। তাই অগ্রিম কিছু বাজার করতে এসেছেন। কিন্তু গাড়ি পাওয়া দুষ্কর হয়ে যাচ্ছে। কখনো গাড়ি পেলেও ৫ টাকার ভাড়া নিচ্ছে ২০ টাকা। আর এদিকে কাঁচাবাজারেরও সবজি, মাংস, ডিমের দামও বাড়তি। দোকানি আর গাড়ি চালকদের একই কথা নিলে নেন, গেলে উঠেন আর না হলে যান। নগরীর অধিকাংশ মোড়ে পুলিশের অবস্থান থাকছে। সেখানে তারা যাতায়াতকারী পরিবহণগুলোকে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন। মাস্ক না থাকলে বা জরুরি প্রয়োজনে বাইরে এসেছেন এটা প্রমাণে ব্যর্থ হলেই তাদেরকে ঘুরিয়ে দেয়া হচ্ছে। আবার কখনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসেবে গাড়ির বাতাস ছেড়ে দেয়া হচ্ছে। জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ টিম জরিমানাও করছেন। নগরীর প্রবেশপথগুলোতে বাড়তি নজরদারি অব্যাহত রয়েছে। রোগি ও পণ্যপরিবহনের গাড়ি ছাড়া প্রবেশপথগুলো দিয়ে অন্য কোনো গাড়ি নগরীতে ঠুকতে দেয়া হচ্ছে না। এরমধ্যেও ভেতরের বিভিন্ন রাস্তাগুলো দিয়ে নগরীতে কিছু গাড়ি ঠুকতে দেখা গেছে। তবে অধিকাংশ গাড়িকেই ঘুরিয়ে দিচ্ছে পুলিশ। এমন অবস্থা নগরীর মোড়গুলোতেও। নগরীর মোড় থেকে পুলিশ গাড়ি ঘুরিয়ে দিচ্ছে। চালক সেখানে যাত্রী নামিয়ে দিচ্ছেন। যাত্রীরা কিছুদূর হেঁটে আবার গাড়ি নিচ্ছেন। সামনের মোড়ে আবার নামিয়ে দিচ্ছে। মোড় পেরিয়ে আবার মিলছে গাড়ি। এভাবে মোড়গুলো হেঁটে পার হয়ে গাড়ি পরিবর্তন করেই অসুস্থ রোগির গাড়ি, রিজার্ভ গাড়ি ও ব্যক্তিগত গাড়ি ছাড়া অন্য জরুরি প্রয়োজনের মানুষগুলো চলাফেরা করছেন। আর এক্ষেত্রে গাদাগাদি করে যাত্রী নিয়ে অধিক ভাড়ায় যাতায়াত করছে কিছু চার্জার অটো। তবে নগরীর কোর্ট থেকে সাহেববাজার, লক্ষীপুর, রেলগেট, কাজলা, ভদ্রা এসব রাস্তায় অটোর চলাচল নেই বললেই চলে। অটো রিকশাও কম চলছে।তবে নগরীজুড়ে ভেতরের ছোট ছোট রাস্তাগুলোতে চায়ের আড্ডা আর খোশ গল্পে মাতছেন অনেকেই। এক্ষেত্রে মাস্ক কিংবা সামাজিক দূরত্ব কোনোটাই নিশ্চিত হচ্ছে না। তবে সন্ধ্যার পর নগরী একেবারেই ফাঁকা দেখা যাচ্ছে। রাস্তায় থাকছে না কোনো যানবাহন, থাকছে না মানুষেরও চলাচলও।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com