বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ১২:৫৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বরিশাল হাসপাতালে  টাকা না দেয়ায় মেলেনি অক্সিজেন, ছটফট করে মারা গেলেন রোগী হেলেনা জাহাঙ্গীরের ২ সহযোগী আটক অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ের সংশ্লিষ্টরা ভ্যাকসিন না নিলে বেতন বন্ধ টিকা বাণিজ্যে অভিযুক্ত ‘হুইপ পোষ্য’কে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত হিলিতে তুলা কারখানায় আগুনে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি গাইবান্ধা গ্রাম পুলিশরা মানহীন সাইকেল গ্রহণে অস্বীকৃতি  অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম জয়ে টাইগারদের প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন জগন্নাথপুরে করোনা উপসর্গে চার ঘণ্টার ব্যবধানে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু ২৬০০ ডোজ টিকা বিক্রি করেন হুইপের ভাই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি জয় নিয়ে যা বললেন মাহমুদউল্লাহ
করোনায় অন্তঃসত্ত্বা মায়ের যত্নআত্তি

করোনায় অন্তঃসত্ত্বা মায়ের যত্নআত্তি

নিউজ ডেস্ক :
অতিমারির সময়ে সবাই স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতন হতে বাধ্য হয়েছেন। করোনায় একের পর এক ঢেউয়ে বিপর্যস্ত জনজীবন। একে তো কোভিড সংক্রমণ তার উপর বর্ষাকাল, সব মিলিয়ে অন্তঃসত্ত্বা মায়েরা আছেন দুশ্চিন্তায়। যদিও সবসময় চিন্তামুক্ত থাকতে হবে তাদের। এ সময়ে অন্তঃসত্ত্বা মায়েরা কিভাবে নিজেকে সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে রাখবেন, চলুন জেনে নেওয়া যাক-

 

১.একটা বিষয় খুব ভালোভাবে জেনে রাখা প্রয়োজন, সেটা হলো নিতান্ত দরকার না পড়লে অন্তঃসত্ত্বাদের এখন বাড়ির বাইরে যাওয়া উচিত নয়। সেটা লকডাউনের পরেও। হাসপাতাল বা চিকিৎসকের কাছে যদি যাওয়ার দরকার হয় তাহলে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে তারপর যেতে হবে।

 

২.অন্তঃসত্ত্বা মায়েরা সর্বদা দুটি মাস্ক ব্যবহার করবেন। খাওয়া, মুখ ধোয়া, গোসল করা এবং ঘুমানোর সময় বাদ দিয়ে সবসময় মাস্ক পড়ে থাকবেন।

 

৩.গর্ভাবস্থায় টিকার বিষয়ে সচেতনতার প্রয়োজন। অন্তঃসত্ত্বা মায়েদের এখন করোনার টিকা নেওয়ার ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে অবশ্যই দ্রুত টিকা নিতে হবে হবু মায়েদের। অন্যান্য ওষুধও খেতে হবে নিয়ম করে। তবে এ সময়টাতে জিঙ্ক বা অন্য কোনো ভিটামিন চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া খাওয়া ঠিক নয়।

 

৪.বাড়ির অন্যান্য সদস্যদেরও অন্তঃসত্ত্বা মায়েদের জন্য বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। বাড়িতে কারো হাঁচি, সর্দি, জ্বর হলে কোনো ভাবেই হবু মায়ের কাছাকাছি যাওয়া চলবে না।

 

৫.বর্ষাকালে কখনো কখনো অন্তঃসত্ত্বা মায়ের সর্দি-কাশি হতে পারে। তেমন হলে গরম পানিতে গার্গল করবেন, অসুখটাকে বাড়তে দেবেন না। যদি এর সঙ্গে শ্বাসকষ্ট থাকে তখন করোনাভাইরাস সংক্রমণের কথা ভাবতে হবে ও প্রয়োজনে পরীক্ষা করাতে হবে। মনে রাখবেন, পুষ্টিকর খাবার ও পর্যাপ্ত ঘুমের সঙ্গে সর্বদা মন ভালো রাখতে হবে। তা হলে মা ও শিশু দুজনেই সুস্থ থাকবে।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com