শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৪:০৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ার দখলে টিটো-মোশারুলের লড়াই, কার পক্ষ নেবে আ’লীগ আটপাড়ায় প্রধান শিক্ষকগণের মাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত কয়রার বাগালী ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট সভা ঠাকুরগাঁওয়ের মাদারগঞ্জ গরু হাটে অতিরিক্ত খাজনা আদায়ের অভিযোগ ঠাকুরগাঁওয়ে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার জাকির হোসেনের সাথে মতবিনিময় সভা প্রতারণার নতুন কৌশল ঠাকুরগাওয়ে মসজিদ, মাদ্রাসা সহ পাকাবসতবাড়ী নির্মাণের নামে কোটি কোটি টাকার প্রতারণা আটপাড়ায় খুদে শিক্ষার্থীদের ক্লাস নিলেন ইউএনও এম. সাজ্জাদুল অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল ঠাকুরগাঁওয়ে বক্ষব্যাধি ক্লিনিকের এক্সরে মেশিনটি প্রায় ১৫ বছর ধরে নষ্ট হয়ে পড়ে রয়েছে, আর অন্যদিকে চিকিৎসক সংকট ফরিদপুরে গরমে বেড়েছে তাল শাঁসের বিক্রি
রাজশাহীতে সরকার নির্ধারিত দামে মিলছে না গ্যাস সিলিন্ডার

রাজশাহীতে সরকার নির্ধারিত দামে মিলছে না গ্যাস সিলিন্ডার

নিজস্ব প্রতিনিধি :

রাজশাহীতে সরকার নির্ধারিত দামে মিলছে না এলপি গ্যাস সিলিন্ডার। ১২ কেজির সিলিন্ডারের নির্ধারিত দাম ১ হাজার ২৮৪ টাকা হলেও তার চেয়ে সিলিন্ডার প্রতি ৫০ থেকে ১০০ টাকা বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস।
এলপি গ্যাস সিলিন্ডারপ্রতি ১৪৪ টাকা বৃদ্ধি করে ১ হাজার ২৮৪ টাকা দাম নির্ধারণ করে দেয় সরকার। কিন্তু বুধবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকালে বাজার ঘুরে দেখা যায়, নির্ধারিত দামে কোথাও মিলছে না গ্যাস।

সাধারণ ক্রেতারা বলছেন, নিত্যপণ্যের যখন ঊর্ধ্বগতি সেইসঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে গ্যাসের দাম। এ যেন সাধারণ মানুষের চিরে চাপটা দশা। তাই সরকারের নীতিনির্ধারকদের উচিত সাধারণ মানুষের আয়ের দিক বিবেচনা করে দ্রব্যমূল্যও নির্ধারণ করা।

রাজশাহীর রাণী বাজার এলাকার চায়ের দোকানি পলাশ বলেন, যেভাবে সবকিছুর দাম বাড়ছে, আয়তো বাড়ছে না। আবারও গ্যাসের দাম বাড়লো। আজ সকালেই আমাকে ১২ কেজির সিলিন্ডার ১ হাজার ৪৫০ টাকায় কিনতে হয়েছে। তিনি বলেন, শুধু গ্যাসের দামই নয়, সবকিছুর দাম বেড়েছে। ফলে দোকান চালাতেই হিমশিম খেয়ে যাচ্ছি।

নগরীর সালবাগান এলাকার ভাজা পোড়া দোকানদার কাদের বলেন, গ্যাসের দাম ক্রমেই বাড়ছে। এটি নিয়ে আমাদের শুধু দোকানই নয় সংসারেও প্রভাব পড়বে। কঠিন অবস্থার মধ্যে পড়ে যাচ্ছি আমরা।
এদিকে ব্যবসায়ীরা বলছেন, কোম্পানি থেকে বেশি দামে কেনার ফলে সরকারনির্ধারিত দামে বিক্রি করা সম্ভব হচ্ছে না।

রাজশাহী আনন্দ এন্টারপ্রাইজের মালিক আকাশ শাহ বলেন, আমরা পাইকারি ১২ কেজি গ্যাস বিক্রি করছি ১ হাজার ৩৫০ টাকায়। এই গ্যাসটা পাড়া-মহল্লায় গিয়ে ১ হাজার ৪৩০ থেকে ১ হাজার ৪৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আমরা কিনেছিই ১ হাজার ২৮০ টাকায়। তাহলে সরকারি দামে কিভাবে বিক্রি করবো?

রাজশাহী জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে সহকারী পরিচালক মাসুম আলী বলেন, সরকার নির্ধারিত দামে চেয়ে বেশি টাকা নেওয়ার সুযোগ নেই। যদি ব্যবসায়ীরা সরকার নির্ধারিত দামের বেশি নিলে লিখিত অভিযোগ করেন। দুই-একটি ব্যবসায়ীদের জরিমানা না করলে তারা ঠিক হবে না।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com