বুধবার, ২৯ Jun ২০২২, ১০:২৪ অপরাহ্ন

২৪৫ রানে থামল টাইগাররা, জয়ের জন্য প্রয়োজন ৮৪ রান

২৪৫ রানে থামল টাইগাররা, জয়ের জন্য প্রয়োজন ৮৪ রান

নিউজ ডেস্ক :
ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ২৪৫ রানে অলআউট হয়েছে বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসান ও নুরুল হাসান সোহানের ১২৩ রানের লড়াকু জুটিতে ভর করেই ইনিংস হারের শঙ্কায় থাকা ম্যাচে ৮৩ রানের লিড পায় বাংলাদেশ। এতে জয়ের জন্য ক্যারিবীয়দের প্রয়োজন ৮৪ রান।

শনিবার ১১২ রানে পিছিয়ে থেকে তৃতীয় দিন শুরু করে বাংলাদেশ সকালের সেশনেই হারিয়েছে ৪ উইকেট-নাজমুল হোসেন (১৭), মুমিনুল হক (৪), লিটন দাস (১৭) ও মাহমুদুল হাসান জয়কে (৪২)। একপর্যায়ে বাংলাদেশের ইনিংস ব্যবধানে হারের শঙ্কাই জেগেছিল।

তবে সেটি হতে দেননি সাকিব ও নুরুল। তাদের ব্যাটে ভর করে লিড নেয় টাইগাররা। সাকিব আর সোহানের লড়াকু এই জুটিতেই ছিল বাংলাদেশের সব আশা-ভরসা। দলের স্বীকৃত ব্যাটারদের শেষ জুটি যে এটিই। অবশেষে শতরানের জুটিটি ভেঙেছেন ক্যারিবীয় পেসার কেমার রোচ। ২৩১ বলে গড়া জুটিটি ছিল ১২৩ রানের। সাকিব আউট হন ৬৩ রানে।
এরপর বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি সোহানও। এই উইকেটও নিয়েছেন রোচ। ৬৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। তার আউটের পরই খেলা একপ্রকার শেষ হয়ে যায়। পরে এবাদত (১), মুস্তাফিজ (৭) ও খালেদ (০) কেউ ইনিংসটাকে আর লম্বা করতে পারেননি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলারদের মধ্যে কেমার রোচ ৫৩ রানে ৫টি উইকেট শিকার করেন। ৩টি উইকেট পান আলজেরি জোসেফ। আর দুই উইকেট নেন কাইল মায়ার্স।

শুক্রবার প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ১০৩ রানের জবাবে ক্যারিবীয়দের ইনিংস থামে ২৬৫ রানে। ১৬২ রানে পিছিয়ে থেকে ওইদিনই দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। শুরুতে দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও মাহমুদুল হাসান জয় লড়াইয়ে ফেরার আশা দেখায়।

কিন্তু খানিক পরই তামিম ও মিরাজের উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বাংলাদেশ। তামিম ২২ রান আর মিরাজ দুই রানে আউট হন। দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে ২ উইকেটে হারিয়ে টাইগারদের স্কোরবোর্ডে যোগ হয় ৫০ রান। শনিবার ১১২ রানে পিছিয়ে থেকে দিন শুরু করেছিল বাংলাদেশ।

শেয়ার করুন .....




© 2018 allnewsagency.com      তত্ত্বাবধানে - মোহা: মনিকুল মশিহুর সজীব
Design & Developed BY ThemesBazar.Com